প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাগমারায় আ’লীগ সরকারের সময়ে যোগাযোগে আমূল পরিবর্তন

বাগমারা প্রতিনিধি : বর্তমান সরকারের সময়ে যোগাযোগ খাতে উন্নয়ন হয়েছে চোখে পড়ার মতো। বিগত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল নাজুক। পিছিয়ে পড়েছিল বাগমারা।ছিল অবহেলিত এক পশ্চাদমুখ জনপদের নাম ছিল বাগমারা। ওই সময়ের যোগাযোগে পিছিয়ে থাকা বাগমারা এখন অনেক অগ্রসর।নতুন নতুন রাস্তা নির্মাণ, সংস্কার, পাকাকরণ এবং ব্রীজ কালভার্ট নির্মাণ হয়েছে। খোলে গেছে সহজ যোগাযোগের দ্বার।

যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের কারণে মানুষের জীবন যাত্রার মানও বেড়েছে, কমেছে দুর্ভোগ। এ সময়ে উপজেলার মোট ২২০ কিলোমিটার নতুন রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। সংস্কার করা হয়েছে আরো রাস্তা।বর্তমান সরকারের আমলে স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধিনে মোট ৪২৭ মিটার দৈর্ঘ্য নতুন ৭টি ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তরের তত্ত্বাবধানে আরো ৩২ টি ব্রীজ নির্মাণ করা হয়েছে। দামনাশ-ফতেপুর ভায়া সোনাডাঙ্গা সড়কে, পাহাড়পুর-হুলিখালী রাস্তায়, রায়নগর-শুটকিগাছা, তালতলি-যাত্রাগাছি সড়কে, মন্দিয়াল-বান্দাইখাড়া সড়কে, ভবানীগঞ্জ-বান্দাইখাড়া সড়কে ও গোড়সার-জোলাপাড়া সড়কে নির্মাণ করা হয়েছে নতুন সাতটি ব্রীজ।

এ সময়ে আরো ২২ মিটার দৈর্ঘ্য আরো পাঁচটি কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে। পাহাড়পুর থেকে হুলীখালি, দামনাশহাট-ফতেপুর, মচমইল-খালগ্রাম, মচমইল-মোহনগঞ্জ, তাহেরপু-শ্রীপুর সড়কটি পাকাকরণের দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। এগুলো সাংসদের নির্বাচনী অঙ্গিকারও ছিল। তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর এসব সড়কের কাজ করেছেন। এছাড়াও তিনি, মচমইল থেকে হাট গাঙ্গোপাড়া, সাঁকোয়া থেকে মধ্যঝিনা, তালতলী থেকে মাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ, যাত্রাগাছি থেকে বড়বিহানালী ইউনিয়ন পরিষদ, শ্রীপুর থেকে মোহনগঞ্জ, তাহেরপুর থেকে শ্রীপুর, গোবিন্দপাড়া থেকে হুলিখালী, খদ্দোকৌড় থেকে শুভডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ, মাড়িয়া থেকে বানইল, নারায়নপুর থেকে বটতলীহাট, বাইগাছা থেকে নরদাশ ইউনিয়ন পরিষদ রাস্তা, মাড়িয়া থেকে হাতরুম, মাথা ভাঙ্গা থেকে দয়েরঘাট, গোপালপুর থেকে আচিনঘাট, বাড়ীগ্রাম থেকে কাইনস্বর, নামাজগ্রামে থেকে মুগাইপাড়া পর্যন্ত পাকাকরণ চলছে।

এছাড়াও সোনাডাঙ্গা থেকে শিমলা ভায়া ভরট্ট, খর্দ্দকৌর থেকে শুভডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ, সাইপাড়া থেকে হাটমাধনগর। যে সকল রাস্তা চলতি মাসের মধ্যেই শুরু হবে কাচারীকোয়ালপিাড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পীরগঞ্জ বাজার, বড়বিহানালী হতে হরিণমারা, বাঁধেরহাট থেকে ফতেপুর, শেরকোল থেকে শিমলা, পাকাকরণ করা হয়েছে। এরই মধ্যে যে সকল রাস্তা সংস্কার করা হয়েছে ভবানীগঞ্জ থেকে বীরকুৎসা, মচমইল থেকে হাট-গাঙ্গোপাড়া, হাট-গাঙ্গোপাড়া থেকে গোবিন্দপাড়া, ভটখালী থেকে ঝিকরা, ভবানীগঞ্জ থেকে বান্দাইখাড়া। কিছুদিনের মধ্যে সংস্কার করা হবে ভাগনদী থেকে আহসানগঞ্জ, মচমইল থেকে মোহনগঞ্জ এবং ভবানীগঞ্জ থেকে ঝিকরা। বাগমারা উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী সানোয়ার হোসেন বলেছেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূখী কর্মকান্ড আর বাগমারা আসনের এমপি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হকের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফলেই বাগমারার সব খানে উন্নয়নের ছোয়া লেগেছে। আরো যে সব রাস্তা সংস্কার ও পাকা করণের উদ্যোগ হাতে নেওয়া তা সম্পূর্ণ হয়ে বাগমারার অনেক সমস্যাই সমাধান হবে ।

উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের মাধ্যেমে উপজেলার বেশ কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। চলমান নির্মাণাধীন ভবন সমূহ চাঁনপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাঁকোয়া, দেওপাড়া বিলমাললী, বীরকয়া ত্রিমোহনী, রুহিয়া মাহমুদপুর, সমষপুর এবং চাইসারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। এছাড়া নতুন ভবন নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন হরিমারা, মহব্বতপুর এবং বারুইপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। অপরদিকে বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ নির্মাণ ও সংস্কার করেছে ২০ কিলোমিটার রাস্তা। উপজেলার অবহেলিত কাচারীকোয়ালীপাড়া ইউনিয়নে কোন পাকা রাস্তা না থাকলে এ সরকারের আমলে এ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ভবানীগঞ্জ-মোহনপুর সড়কের পাকাকরণের কাজ করা হয়েছে এ সরকারের সময়ে। সড়কটি ছিল এলাকাবাসীর প্রাণের দাবি। এর ফলে ইউনিয়নবাসীর উপজেলা সদরের সঙ্গে যোগাযোগের পথ সহজ হয়েছে। সাংসদ এনামুল হকের প্রচেষ্টায় পাকাকরণ করা হয়েছে বাগমারার প্রায় ২২০ কিলোমিটার রাস্তা। এছাড়া সংস্কার করা হয়েছে ১১৫ কিলোমিটার রাস্তা। আরো রাস্তা নির্মাণ ও সংস্কারের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এ সময়ে উপজেলার তালতলীঘাট ব্রীজ, মাধনগর ব্রীজ, উত্তর একডালা ব্রীজ, জোলাপাড়া ব্রীজ, রায়নগর ব্রীজ, চাইসাড়া ব্রীজ, খালগ্রাম ব্রিজ, নিচু কাতিলা ব্রীজ, ঝিকরা-কয়ড়া বাড়ি ব্রীজ পাহাড়পুরে ব্রীজ নির্মাণের যে দাবি ছিল তা পূরণ করেছেন সাংসদ। নতুন নতুন অত্যাধুনিক ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়েছে। এর মধ্যে দ্বীপপুর, মাড়িয়া, গোবিন্দপাড়া, হামিরকুসা ও কাচারী কোয়ালীপাড়া ইউপি। এছাড়াও সদ্যনির্মাণ করা হলো বড় বিহানালী ইউনিয়ন পরিষদের ভবন। অন্যদিকে শুভডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের নতুন ভবন নির্মাণের সকল কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বাগমারায় নির্মাণ করা হয়েছে আধুনিক খাদ্যগুদাম, সার্ভার ষ্টেশন, ঝিকড়ায় ঠাকুরঝিতে আবাসন প্রকল্প, ২৮ টি নতুন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ ও ৩১ টি সংস্কার করা হয়েছে। এছাড়া নয়টি কলেজ, ৪২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ১১ টি মাদ্রাসার নতুন ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। উপজেলা কেন্দ্রিয় শহীদ মিনার ও ডাকবাংলো নির্মাণ করা হয়েছে।

খাদ্য দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের কাবিখা প্রকল্পের মাধ্যমে ১৭ কোটি ৮৮ লাখ ৫৩ হাজার ২৮৪ টাকা ব্যয়ে ২১৮ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়াও টি, আর প্রকল্পের মাধ্যমে ৩ হাজার ১০৯ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এজন্য মোট ৪ হাজার ৯৭০ মেট্রিকটন খাদ্য শস্য বরাদ্দ দেওয়া হয়। যার বাজার মূল্য ৩৬ কোটি ৯৫ লাখ ৭২ হাজার ৯৯৮ টাকা। একই মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে অতি দরিদ্রের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচী ও বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর বাস্তাবায়নের জন্য ব্যয় করা হয়েছে ১৬ কোটি ১০ লাখ ৫১ হাজার ৬৭১ টাকা।

প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান জানান, প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস হতে নির্মাণ করা হয়েছে ৩২ মিনি ব্রীজ, ৪ কিলোমিটার হেরিং বন্ড রাস্তা। এছাড়াও ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে প্রায় ৫ কোটি টাকার, ঢেউটিন বিতরণ করা হয়েছে ৩ হাজার বান্ডিল। এছাড়াও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গৃহ নির্মাণ প্রকল্প-২ আওতায় উপজেলায় ৩৭০ জন গৃহহীণ পরিবারকে গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত