প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গ্রেফতারের ৪৮ ঘন্টা গেলেও আদালতে হাজির না করায় শিবিরের উদ্বেগ

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন গ্রেফতারের পর ৪৮ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ শাখার সভাপতি শাফিউল আলমসহ ৫জনকে এখনো আদালতে হাজির না করায় উদ্বেগ প্রকাশ এবং অনতিবিলম্বে তাদের সন্ধান দাবি করেছে।

রোববার এক যৌথ বিবৃতিতে শিবির নেতৃদ্বয় এ কথা বলেন।

ছাত্র শিবির নেতৃদ্বয় বলেন, ১২ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টায় শফিউল আলম তার ছোট ভাই ও ছোট ভাইয়ের বন্ধুকে নিয়ে হজ্জ ফেরত মা ও বড় ভাইকে রিসিভ করতে শাহজালাল আন্তর্জাাতিক বিমান বন্দরে যান। মা ও বড় ভাইকে নিয়ে বাসার উদ্যোশ্যে গাড়ীতে উঠলে সাদা পোষাকধারী পুলিশ সদস্যরা মায়ের ভাইয়ের সামনে থেকেই শাফিউল আলমকে তার ছোট ভাই ও ছোট ভাইয়ের বন্ধুসহ গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। পরে যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তার বাসা থেকে মো. শফিউল্লাহ ও মো. মা’আজ নামে আরো দুই শিবির কর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কিন্তু গ্রেফতারের পর ৪৮ ঘন্টা অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত তাদেরকে গ্রেফতার দেখানো হয়নি এবং আদালতেও হাজির করা হয়নি।

নেতৃদ্বয় বলেন, আইন আদালতের তোয়াক্কা না করে পুলিশ তাদেরকে নিয়ম অনুযায়ী আদালতে হাজির করেনি। নিরপরাধ মেধাবী ছাত্রদেরকে প্রকাশ্য গ্রেফতার করে দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও আদালতে হাজির না করা সম্পূর্ণ বেআইনি ও দায়িত্বহীনতা। গ্রেফতারের পর আদালতে না তোলার পেছনে কোন ষড়যন্ত্র আছে বলে আমরা মনে করি। সাম্প্রতিক সময়ে এভাবে গ্রেফতারের পর আদালতে হাজির না করে অনেক ছাত্রকে হত্যা, নির্যাতন ও নাটক সাজানোর বহু উদাহরণ রয়েছে। পুলিশের ধারাবাহিক অমানবিক আচরণে তাদের পরিবারের সাথে সাথে আমরাও গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।
নেতৃদ্বয় আরও বলেন, কোন অভিযোগ ছাড়াই নিরাপরাধ ছাত্রদেরকে গ্রেফতারের আমরা তীব্র নিন্দা জানান। তাদেরকে নিয়ে কোন প্রকার নাটক ছাত্রশিবির মেনে নিবে না। অবিলম্বে পুলিশের পোশাকে এই ধরনের অন্যায় আচরণ ও আইন বহির্ভূত কর্মকাণ্ড বন্ধ করুন।

তারা গ্রেফতারকৃত শিবির নেতা শাফিউল আলমসহ ৫ জনের অবস্থান নিশ্চিত ও তাদেরকে আদালতে হাজিরের মাধ্যমে আইনি প্রক্রিয়া অনুস্বরণ করার জন্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত