প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে বিতর্ক
‘সাংবাদিকদের কাজে যাতে বিঘ্ন না ঘটে ’

মো. এনামুল হক এনা : ডিজিটাল আইন দরকার আছে, কেন না ডিজিটাল ক্রাইম প্রতিনিয়ত বাড়ছে। ডিজিটাল প্রযুক্তিকে অপব্যবহার করে অপরাধ করার প্রবণতা বেড়ে গেছে। ডিজিটাল প্রযুক্তির এই অপরাধকে নিয়ন্ত্রণের দরকার আছে। আমাদের নতুন সময়ের সাথে আলাপকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ডিজিটাল অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে যাতে সাংবাদিকদের কাজে বিঘ্ন না ঘটে, সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে। আমাদের সংবিধান গণমাধ্যমের স্বাধীনতা দিয়েছে। মত প্রকাশ ও মুক্তিকামী মানুষ যাতে বিঘ্নতার শিকার না হয়, সেদিকে নজর রাখার দরকার। কিন্তু ডিজিটাল প্রযুক্তির অপব্যবহারের নিয়ন্ত্রণও দরকার আছে।

ঢাবির সাবেক উপাচার্য আরেফিন সিদ্দিক আরও বলেন, আমি মনে করি যে আইন হয়েছে, সেটা সাংবাদিকদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য করতে বিধি-নিষেধ থাকা দরকার সেদিকে লক্ষ্য রাখা উচিত। সাংবাদিকদের দাবি আছে, এই আইনে ধরতে গেলে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের পূর্ব অনুমোদন লাগবে সাংবাদিকদের ক্ষেত্রে। কিন্তু সরকারের নির্বাহী বিভাগ সেটি অনুমোদন দেয়নি।

তিনি বলেন, সরকারের কর্মকর্তাদের দুর্নীতি তদন্তে যেমন একটি পূর্বানুমতি লাগবে ঠিক, একইভাবে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে যদি কোনো অভিযোগ আসে তাহলে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল থেকে যাতে পূর্বানুমতি নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করে। তাহলে মনে হয় এই আইন নিয়ে যে বিতর্কটা শুরু হয়েছে তার অবসান হবে।

তিনি আরও বলেন, আমার মনে হয় প্রযুক্তির অপব্যবহারের জন্য শক্ত আইনের দরকার আছে। শক্ত আইন ছাড়া তো প্রযুক্তির অপব্যবহার রোধ করা যাবে না। কিন্তু এটা নিয়ন্ত্রন করতে গিয়ে যাতে কোনোভাবেই মানুষের মত প্রকাশের স্বাধীনতা বাধাগ্রস্থ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। মুক্ত সাংবাদিকতা নিশ্চিত করার জন্য প্রেস কাউন্সিলের মাধ্যমে একটি নিয়ম করে দেয়া হলে নতুন ডিজিটাল আইন দ্বারা সাংবাদিকতার কোনো সমস্যা হবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত