প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্যস্ত আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা, আলোচনায় তরুণরা

মো. ইউসুফ আলী বাচ্চু: নিজ নিজ এলাকায় তুমূল গণসংযোগে ব্যস্ত আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। শেখ হাসিনার নির্দেশ, তৃণমূলের মনজয় করতে হবে। তাই রাজধানীতে দু’একদিন থেকে পুরো সপ্তাহ নির্বাচনী এলাকা চষে বেড়াচ্ছেন সারাদেশের সংসদ সদস্যরা। তাদের সাথে সমান তালেই মাঠে আছেন নয়া প্রার্থীরা। তরুণ ও ক্লিন ইমেজ, এই দুটি কথা ভাসছে নির্বাচনী এলাকায়, কেন্দ্রেও।

দেশের জেলা উপজেলার চিত্র এখন এমনই। ভোটের হাওয়ায় ভাসছে আওয়ামী পরিবারগুলো। তাদের সমর্থন পেতে অবিরাম মাঠঘাট, হাটবাজারে সময় দিচ্ছেন দলের টিকিট পেতে আগ্রহী নতুন মুখেরা। রাস্তার পাশে চা কিংবা মুদীর দোকানে বসেই বর্তমান সরকারের উন্নয়নচিত্র তুলে ধরে নৌকায় ভোট চাইছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে শরীয়তপুর-২ আসনে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের কাছে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম। তাকে ঘিরে ইতিবাচক প্রত্যাশা তৈরি হয়েছে এলাকায়। এ আসনের বর্তমান এমপি বর্ষীয়ান জননেতা কর্নেল (অব.) শওকত আলী। তিনি আগামী নির্বাচনে স্বাস্থ্যগত কারণে অংশ নিতে পারবেন না ধরে নিয়েই এনামুল হক শামীমের মতো একজন দক্ষ সংগঠককে প্রার্থী হিসেবে চাইছেন দলীয় নেতা-কর্মীরা।

ঝালকাঠির-১ (রাজাপুর- কাঠালিয়া) নেতা- কর্মীদের মাঝে ভরসার নাম এখন ফাতিনাজ ফিরোজ। তিনি নিয়মিত তাদের খোঁজ খবর রাখছেন। সুখে- দুঃখে তাদের পাশে দাড়িয়ে ভরসা দিচ্ছেন। এই জনপদের প্রয়াত প্রিয় নেতা ড. হান্নান ফিরোজের যায়গা তিনি ধরে রেখেন। ফাতিনাজ ফিরোজ বলেন, আমার জীবনে আর কিছু চাওয়ার নাই। মানুষের যে ভালবাসা পেয়েছি জীবনের শেষদিন পর্যন্ত তাদের পাশে থাকব।

ফেনী-১ আসনে দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে আশার আলো জ্বালিয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম। এ আসনের বর্তমান এমপি জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ (ইনু) সাধারণ সম্পাদক শিরীন আকতার।

কুমিল্লা-১ (দাউদকান্দি-মেঘনা) আসনে মনোনয়ন চান আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, কিশোরগঞ্জ-২ আসনের (কটিয়াদী-পাকুন্দীয়া) মনোনয়ন প্রত্যাশী ড. জায়েদ মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ, নারায়নগঞ্জ-৩ আসনে হাসনাত কায়সার, সিলেট-২ (বিশ্বনাথ, বালাগঞ্জ ও ওসমানীনগর) আসন থেকে মনোনয়ন চান যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, চাঁদপুর-৩ আসনের (সদর ও হাইমচর) রেদওয়ান খান বোরহান, ঢাকা-৬ আসনে চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু।

মাগুরা-১ আসনে গত সাড়ে নয় বছর ধরে সম্ভাবনাময় প্রার্থী হিসেবে সবার মুখে মুখে সাইফুজ্জামান শিখরের নাম। প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব হিসেবে এলাকায় উন্নয়নে নেতৃত্ব দিয়ে নিজের সক্ষমতা ও সম্ভাবনা জানান দিয়েছেন তিনি। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন দিলে এই আসনে আওয়ামী লীগের জয়লাভ সহজ হবে বলেই এলাকায় আলোচনা আছে।

চট্টগ্রাম-১৫ আসনে মনোনয়ন চান আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সাতকানিয়া-লোহাগড়ার মানুষের সুখে-দুঃখে তাদের পাশে আছেন। এলাকার উন্নয়নেও ভূমিকা রাখছেন দলের কেন্দ্রীয় এই নেতা। গাজীপুর-৩ আসনের বর্তমান এমপি এডভোকেট রহমত আলী বয়সে রোগে ন্যূব্জ। শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় তিনি আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না বলে মনে করেন স্থানীয় নেতা-কর্মীরা। সেক্ষেত্রে পারিবারিক কারণে এগিয়ে রয়েছেন তার ছেলে জামিল হাসান দুর্জয়। পিতার পাশাপাশি তিনি এলাকার নেতা-কর্মী ও জনগণের সাথে কাজ করছেন।

নেত্রকোনা-৫ আসনে সাবেক ছাত্রনেতা ইঞ্জিনিয়ার তুহিন আহাম্মদ দীর্ঘদিন ধরেই সক্রিয় আছেন। বছরের পর বছর সময় দিয়ে তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী, সমর্থক ও ভোটারদের মধ্যে নিজের ইতিবাচক ভাবমূর্তি গড়ে তুলেছেন। এলাকার উন্নয়ন ও সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। এলাকার তরুণ প্রজন্মের মধ্যেও তিনি গ্রহণযোগ্য অবস্থান গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন। সব মিলিয়ে আগামী সংসদ নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন দিলে আওয়ামী লীগের জয় সহজ হবে বলে অনেকে মনে করেন।

ফরিদপুর-১ (আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী ও মধুখালী) আসনে কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য আরিফুর রহমান দোলন আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী, সমর্থক ও ভোটারদের মধ্যে নতুন সম্ভাবনার নাম। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি নিয়মিত সামাজিক কর্মকাণ্ড করে সাধারণ মানুষের মধ্যে ইতিবাচক ভাবমূর্তি তৈরি করেছেন তিনি। পেশাজীবী দোলনই হতে পারেন ফরিদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী এবং ভোটারদের ইতিবাচক পরিবর্তনের হাতিয়ার। তৃণমূলে এটিই এখন জোর আলোচনা। এ আসনে তরুণ প্রার্থী হিসেবে আরো আলোচনায় রয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি লিয়াকত সিকদার। তিনিও এলাকায় নিয়মিত গণসংযোগ করছেন।

এনামুল হক শামীম, আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম, সাইফুজ্জামান শিখর, আরিফুর রহমান দোলন ও লিয়াকত সিকদারই নন,আরও অর্ধশত তরুণ প্রার্থী এলাকায় জোর সম্ভাবনা জাগিয়েছেন। তরুণ প্রজন্মের ভোট টানতে তাদের অনেকেই এবার দলের মনোনয়ন পেতে পারেন বলে আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে, টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান প্রার্থী হতে চাইছেন। বর্তমান সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানা আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি হয়ে কারাগারে রয়েছেন। টাঙ্গাইল-৬ আসনে তরুণ প্রার্থী হিসেবে নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন সাবেক ছাত্রনেতা তারেক শামস হিমু। তিনি বর্তমানে আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া উপ-কমিটির সদস্য। নিয়মিত এলাকায় গণসংযোগ করে চলেছেন সাবেক এই ছাত্রনেতা। টাঙ্গাইল-২ আসনে আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি খন্দকার আসাদুজ্জামান। এ আসনে এবার দলের তৃণমূলে জনপ্রিয়তায় এগিয়ে রয়েছেন খন্দকার আসাদুজ্জামানের ছেলে মশিউজ্জামান খান রুমেল। তিনি এলাকায় গণসংযোগ করে চলেছেন।

পিরোজপুর-২ আসনে ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইসহাক আলী খান পান্না দীর্ঘদিন ধরে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। নিয়মিত এলাকায় সময় দিচ্ছেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী, সমর্থক ও ভোটারদের মধ্যে তিনি সুপরিচিত। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাকে প্রার্থী করা হলে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত মনে করছেন দলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।

কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে ঘিরে পরিবর্তনের স্বপ্ন দেখছে এলাকাবাসী। ভিসি পদ থেকে অবসর নেওয়ার পর ডা. প্রাণ গোপাল স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হয়েছেন।

এ ছাড়া নেত্রকোনা-৩ আসনে অসীম কুমার উকিল, নেত্রকোনা-২ আসনে চিত্রনায়ক রানা হামিদ ও শামসুর রহমান ভিপি লিটন, ময়মনসিংহ-৩ আসনে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের মহাসচিব ডা. এম এ আজিজ, ঢাকা-৮ আসনে যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট, জামালপুর-১ আসনে বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূর মোহাম্মদ, ঝালকাঠি- ১ ফাতিনাজ ফিরোজ, মনিরুজ্জামান, মো. ইসমাঈল নিয়মিত এলাকায় নেতা-কর্মীদের খোঁজ খবর রাখেন, পাবনা-১ আসনে অধ্যাপক আবু সাইয়িদ, সিরাজগঞ্জ-৬ আসনে সাবেক এমপি চয়ন ইসলাম, নীলফামারী-৪ আসনে নাফিউল করিম নাফা, রংপুর-৫ আসনে জাকির হোসেন সরকার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনে সাবেক ছাত্রনেতা ইঞ্জিনিয়ার মাহতাব উদ্দিন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে যুবলীগ নেতা আনোয়ারুল ইসলাম আওয়ামী লীগের প্রার্থী হলে ভোটারদের মধ্যে ইতিবাচক বার্তা পৌঁছবে, এমনই ধারণা অনেক সাধারণ ভোটারের মাঝেও।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত