প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোটা বাতিল চাইনি, সংস্কার চেয়েছি

জোনায়েদ সাকি : আমরা বারবার বলেছি, আমরা কোটা বাতিল চাই না, সংস্কার চাই। চাকরির ক্ষেত্রে কিছু কিছু জায়গায় কোটা তো থাকতেই হবে। যেমন প্রতিবন্ধি এবং আদিবাসি কোটা থাকতেই হবে। নারী এবং অনগ্রসর এলাকার জন্য এবং মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবার প্রতি একজনকে কোটায় সুযোগ দেয়া। এগুলো বাস্তবায়ন করলে ১৫ থেকে ২০ শতাংশে নামিয়ে আনা সম্ভব। কমিটি প্রস্তাব করেছে মাত্র। আরো অনেক প্রক্রিয়া আছে এখনো। কমিটির সুপারিশ প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি পেলে মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করা হবে। মন্ত্রিসভার অনুমতি পেলে তারপর প্রজ্ঞাপন জারির ব্যাপারটা আসবে। এখন দেখা যাক তারা কী করে?

এটি কমিটির বা সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাস্তবায়ন করা ঠিক হবে না। কারণ এটি সমাজের ব্যপার, রাষ্ট্রীয় পলিসির ব্যাপার। এখানে সমাজের সবার মতামতের সুযোগ রাখতে হবে। আন্দোলনের মাধ্যমে যে দাবিগুলো উঠে এসেছে, সমাজের মধ্যে যে চিন্তা-ভাবনা গুলো হচ্ছে, সেগুলোকে গুরুত্ব না দিয়ে কোন সিদ্ধান্ত নেয়া সঠিক হবে না কোটা যেমন সংস্কার করতে হবে, তেমনি কোটা সম্পূর্ণ বাতিল করা ন্যায়সঙ্গত হবে না। তাই আমাদের দাবি হলো, সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের মতামত নিয়ে কোটা পদ্ধতি যৌক্তিকভাবে সংস্কার করা।

পরিচিতি : প্রধান সমন্বয়ক, গণসংহতি আন্দোলন / মতামত গ্রহণ : ফাহিম আহমাদ বিজয় / সম্পাদনা : রেজাউল আহসান

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত