প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যেভাবে হয়েছিল হিজরি বর্ষের মাসগুলোর নামকরণ

আমিন মুনশি : হিজরি বর্ষের মাসগুলোর নামকরণ কিভাবে হয়েছিল- পাঠকদের অনেকেই বিষয়টি আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন। আসুন, আজ আমরা বিষয়টি সম্পর্কে জানার চেষ্টা করবো:

১. মহররম। এটি হিজরি সনের প্রথম মাস এবং মহিমান্বিত মাসগুলোর একটি। এ নামে নামকরণের কারণ হলো, ইসলামপূর্ব যুগে আরবরা এ মাসে যুদ্ধ-বিগ্রহকে নিষিদ্ধ করেছিল।

২. সফর। সফর বলে নামকরণের কারণ হলো, আরবদের আবাসভূমি যুদ্ধের কারণে শূন্য থাকত। কারো মতে, আরবরা এ মাসে গোত্রে গোত্রে যুদ্ধে লিপ্ত হতো, বিপক্ষের কাউকে পেলে তাকে রিক্তহস্ত করে ছাড়ত।

৩. রবিউল আউয়াল। যেহেতু এটি বসন্তকালে নামকরণ করা হয়েছে। আর আরবিতে ‘রবি’ অর্থ বসন্ত।

৪. রবিউস সানি। যেহেতু এটি রবিউল আউয়ালের পরপরই এসেছে।

৫. জুমাদাল উলা। ইসলামপূর্ব যুগে একে বলা হতো ‘জুমাদা খামসা’। জুমাদা অর্থ জমে যাওয়া। শীতকালে হওয়ায় একে এ নামে নামকরণ করা হয়েছে; যেহেতু শীতের সময় পানি বরফের মতো জমা হয়ে যায়।

৬. জুমাদাল উখরা। এটি আগের জুমাদাল উলার অনুগামী, সেহেতু এ মাসকে ওই নামে ভূষিত করা হয়েছে।

৭. রজব। এটি মহিমান্বিত মাসের একটি। এর নামকরণের কারণ হলো, রজব মানে কাঁটার বেড় দেওয়া। যেহেতু বর্শাকে ফলা থেকে আলাদা করে বের করে কাঁটার বেড় দেওয়া হয়। নইলে তা ফলা থেকে বের হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে এবং কোনো যুদ্ধ ইত্যাদি না হয়। কারও মতে, রজব মানেই যুদ্ধবিরতি। কেউ বলেন, কোনো জিনিসকে সম্মান করাকেই রজব বলে।

৮. শাবান। এ নামের কারণ হলো, এটি রজব ও শাবান এ মাসদ্বয়ের মাঝে দূরত্ব সৃষ্টি করে। কেউ বলেন, এ মাসে মানুষ পানির খোঁজে এদিক-ওদিক ছড়িয়ে পড়ে। কারও মতে, রজবে ঘরে বসে থাকার পর আরবরা যুদ্ধ ও হামলার সংকল্পে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ত।

৯. রমজান। এটি মুসলমানদের রোজার মাস। এ মাসে রোদের তীব্র উত্তাপ ও প্রখর দহনের দরুণ একে রমজান বলে নামকরণ করা হয়েছে।

১০. শাওয়াল। এতে রয়েছে ঈদুল ফিতর। যেহেতু এ মাসে উট দুধকে শুকিয়ে ফেলে। তাই একে শাওয়াল বলে নামকরণ করা হয়েছে। শাওয়াল মানে উটের দুধ কমে যাওয়া।

১১. জিলকদ। এটি মহিমান্বিত মাসের একটি। এ নামে নামকরণের কারণ হলো, যেহেতু আরবরা এ মাসে যুদ্ধ ও দূরে কোথাও সফরে যাওয়া থেকে বিরত থাকে। হারাম মাসের সম্মানে এরা কারও কাছে তৃণ বা কোনো রসদ তালাশ করে না।

১২. জিলহজ। এটি পবিত্র হজ, ঈদুল আজহা এবং হারাম মাসের একটি। এ নামে অভিহিত হওয়ার কারণ হলো, ইসলামপূর্ব যুগে এ মাসে আরবরা হজের জন্য বের হতো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ