প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাকিস্তানি বুদ্ধিজীবীদের ব্যাকুলতা ও দীর্ঘশ্বাস

প্রফেসর ড. এম. শাহ্ নওয়াজ আলি : বাংলাদেশ এখন সারা দুনিয়ার বিস্ময়। বিশ্বের বহু দেশ আমাদের উন্নয়ন মডেল অনুসরণ করে। আমাদের কাছে পরার্শ চায়। পরামর্শ নেয়। নিজেদের বাংলাদেশের মতো দেখার ব্যাকুলতাও প্রকাশ পায়। খুব সম্প্রতি এমন আকুলতা প্রকাশ পেয়েছে পাকিস্তানি বুদ্ধিীজীদের মধ্যে। তারা টেলিভিশন টকশোর মাধ্যমে পাকিস্তান সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন, আহ্বান করেছেন যে, আগামী ১০ বছরের মধ্যে এখনকার বাংলাদেশের সমমানের করে যেন দেওয়া হয় পাকিস্তানকে। এ ঘটনায় বিস্মিত আপনি! হতে পারেন। কিন্তু মোটেও বিস্মিত বা আশ্চর্য হইনি আমি। কারণ এমনটিই আসলে স্বাভাবিক। একাত্তর এখনো আমাদের সামনে টাটকা। ভুলিনি কোনোকিছুই। কীভাবে আমাদের নির্বিচারে হত্যা করেছে। কীভাবে আমাদের সম্পদ লুট করে নিজেরা ভোগ-বিলাস করেছে। তাদের মধ্যে মানবিকতা ছিল না। ছিল না কোনো বিবেকবোধ। যার ফলে অন্যায়-অত্যাচারের মতো ঘটনা তাদের কাছে স্বাভাবিক। অন্যকে ধ্বংস করা তাদের নেশা। বর্বরতা তাদের রক্তে। যার ফলে দেশটি এখন ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। বাঙালিদের দমন-পীড়ন করে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করেও পারেনি। ঠিকই বাঙালিরা জেগে উঠেছে। ধ্বংসস্তুপ থেকে ফিনিক্স পাখি এখন বাংলাদেশ। দুর্বার। দুর্দমনীয়। আর পাকিস্তান পতনের সম্মুখে। চারদিকে তাদের হাহাকার। অন্যায় যেখানে নীতি সে সমাজ কখনো ভালো থাকতে পারে না। সেটাই সত্য হয়েছে পাকিস্তানের করুণ দশায়।

আমরা এখন প্রায় সবদিক থেকে পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে। আর্থ-সামাজিক-রাজনৈতিক-গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার সুফল আমরা পাচ্ছি। প্রতিটি মানুষ স্বস্তিতে নিঃশ্বাস নেয়। স্বাধীনভাবে চলে। ভালো-মন্দ যা সামনে আসে তা নিয়ে এগিয়ে যায়। তবে কোনো হা-হুতাশ নেই। স্বস্তি ও সভ্য সমাজ বাংলাদেশ। সংকট-সম্ভাবনাকে আমরা কাজে লাগাই। এগিয়ে যাই। এতে আরও অস্বস্তিতে পড়ে পাকিস্তান। তাদের দীর্ঘশ্বাস আরও বাড়ে। আরও ব্যাকুল হয়। মাথা ঠেকিয়ে মরে! কিন্তু আফসোস, কিছুই করার নেই তাদের! বাংলাদেশকে আটকাবার আর কোনো পথ খোলা নেই ওদের। বাংলাদেশ এগোচ্ছে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।

আমাদের আজকের এই বিস্ময়কর উন্নয়ন-অগ্রগতির নেপথ্যে কে? দেশের জনগণ। মুক্তিযুদ্ধে তারা অকাতরে জীবন দিয়েছে। দেশ স্বাধীন হয়েছে। স্বাধীনতা নিয়ে এখন কাজ করছেন। শ্রম দিচ্ছেন। দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন। বাংলাদেশের অগ্রগতি-উন্নয়নের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, নেতৃত্বে আছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগ সরকার। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বেই বদলে গেছে বাংলাদেশ। বদলে যাওয়া এই বাংলাদেশকে কেউ দাবিয়ে রাখতে পারবে না। এটাই এখন বড় বাস্তবতা।

লেখক : সদস্য, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ