প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘বাংলাদেশ অগণতান্ত্রিক একটি দেশে পরিণত হয়েছে’

মুহাম্মদ নাঈম: কোটা সংস্কারের পরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনটাও যৌক্তিক ছিল। বাংলাদেশে গণতন্ত্র নাই। বাংলাদেশ অগণতান্ত্রিক একটি দেশে পরিণত হয়েছে। গণতন্ত্র বজায় থাকলে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা, মামলা, গ্রেফতার ও নির্যাতন হতো না। অভিভাবকরা তাদের আটককৃত সন্তানদের ঈদের আগে ফিরে পেতে এবং সকল মামলা থেকে তাদেরকে অব্যাহতি চায়। কোটা সংস্কার ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের গ্রেফতার ও কারাগারে আটক প্রসঙ্গে আমাদের অর্থনীতিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. এমাজউদ্দিন আহমদ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনের সাথে জড়িত সাধারণ শিক্ষার্থীদের হয়রানি করা উচিত না। কোটা সংস্কার আন্দোলনে কেন্দ্রীয় কমিটির যে সকল শিক্ষার্থীকে কারাগারে বন্দী রাখা হয়েছে তাদের ব্যপারটা কি আইনি প্রক্রিয়া আছে? নিরপরাধ হলে তাদের বন্দী না রেখে অবশ্যই ছেড়ে দেওয়া উচিত। আর যদি তাদের বিরুদ্ধে কোন অপরাধ প্রমাণিত হয়, তাহলে আইনি প্রক্রিয়ায় তাদের বিচার হতে হবে। কিন্তু যারা আন্দোলনে নেমেছে তাদের বিরুদ্ধে ঢালাওভাবে মামলার পর মামলা দিয়েছে। তাদেরকে রাস্তা থেকে ধরে নিয়ে গ্রেফতার করেছে এবং রিমান্ডও দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীরা নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় নেমেছিল। তাদের সফল আন্দোলনটা দেশে একটি বড় পরিবর্তন এনে দিয়েছে। কিন্তু আমরা ট্রাফিক ব্যবস্থায় কোন বড় পরিবর্তন দেখতে পারছি না। দেশে এক ধরণের স্বৈরতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা চলছে। আইনের শাসনের প্রচুর অভাব আছে। সরকার চাইলে আটককৃত সকল শিক্ষার্থীদের মুক্তি দিতে পারে। কিন্তু, সরকার তা না করে বরং তাদেরকে রিমান্ডে নিয়ে নানা ভাবে নির্যাতন করছে। বিশেষ করে ছাত্রদের উপরে শক্তি প্রয়োগ অত্যন্ত নিন্দনীয়। সরকারের অপকর্মের বিপক্ষে যারা মুখ খুলবে বা কোন আন্দোলন করবে তাদের বিরুদ্বে মামলা দিবে এবং রাস্তা-ঘাট থেকে ধরে নিয়ে গ্রেফতার করবে এবং রিমান্ডও দিবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত