প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গাবতলীতে ‘হাটের রাজা’, দাম ২৫ লাখ!

ডেস্ক রিপোর্ট : আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে রাজধানীর একমাত্র স্থায়ী পশুর হাট গাবতলীতে শুরু হয়েছে বেচাকেনা। ঈদ উদযাপনের আর মাত্র ৩ দিন বাকি থাকায় ধীরে ধীরে ক্রেতাদেরও ভিড় বাড়ছে হাটে। তবে বেশির ভাগ ক্রেতা পশু কেনার চেয়ে দেখছেন বেশি।

গাবতলী পশুর হাটে ক্রেতা, বিক্রেতা থেকে শুরু করে সবার নজর কাড়ছে ‘হাটের রাজা’। হাটে প্রবেশ করার পর লোকমুখে ‘হাটের রাজার’ কথা শুনে অন্তত একবার হলেও দেখেতে যাচ্ছেন ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা।

গাবতলীর হাটের এবারের আর্কষণ ‘হাটের রাজা’ নিজেই। আর কেনই বা হবে না। ‘হাটের রাজা’ যে ১৭’ শ কেজির বিশালদেহী অস্ট্রেলিয়ার পিউর ফ্রিজিয়ান বিটের গরু। প্রথমে দেখলে অনেকেরই হঠাৎ মনে হতে পারে কোনো গরু নয় এ যেন আস্ত এক বিশাল হাতি। আর গরুটির দামও কিন্তু ২৫ লাখ টাকা। আর এমন বিশালদেহী ও ওজনের কারণে ‘হাটের রাজার’ ব্যাপারী আবেগাপ্লুত হয়ে তো বলেই ফেলেছেন এইটি নাকি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশর সব থেকে বড় গরু।

শনিবার গাবতলী পশুর হাটে সরেজমিনে ঘুরে ‘হাটের রাজার’ সম্পর্কে এসব তথ্য জানা যায়।

সরেজমিনে দেখা যায়, ‘হাটের রাজাকে’ সার্বক্ষণিক ঘিরে দর্শনার্থীদের লম্বা ভিড়। একদল দেখে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আরেক দল হাজির হচ্ছেন। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এই ভিড় বেড়েই চলছে। দর্শনার্থীদের অনেকেই আবার স্মার্ট ফোনে ব্যবহার করে ‘হাটের রাজার’ ছবি তুলছেন, ভিডিও করছেন। এছাড়া আবার অনেক দর্শনার্থী ও ক্রেতারা ‘হাটের রাজার’ সঙ্গে সেলফি তুলাতেও মত্ত হয়ে রয়েছেন।
আর ‘হাটের রাজার’ এসব ছবি ও ভিডিও ইউটিউবসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে ভাইরাল করছেন দর্শনার্থীরা। নিজের গরুর এমন প্রচার প্রচারণা দেখে মহাখুশি ‘হাটের রাজার’ ব্যাপারীরাও।

আরও দেখা যায়, ‘হাটের রাজা’ যখন বসে থাকে তখন দর্শনার্থীরা অপেক্ষা থাকেন তার উঠে দাঁড়ানোর। আর উঠে দাঁড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে দর্শনার্থীদের মধ্যে বিদ্যুৎ গতিতে আনন্দ ও উল্লাস ছড়িয়ে পরে বিশালদেহী এই গরুটিকে দেখে।

‘হাটের রাজাকে’ ঘিরে ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের এমন ভিড়ের খুশি হচ্ছেন এই গরুর ব্যাপারী। কেননা ‘হাটে রাজা’ গাবতলীতে এখন সুপারহিট নাম। তাই মোটা অংকের দামও হাঁকাচ্ছেন ব্যাপারী।

বিশালদেহী গরুটি সম্পর্কে ব্যাপারী রাজু বলেন, ২০১৩ সালে ‘হাটের রাজার’ জন্ম। পিউর ফ্রিজিয়ান বিটের এই গরুটি সরাসরি অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা হয়েছে। বিগত ৫ বছরে ধরে গরুটিকে আমরা সিরাজগঞ্জের একটি খামারে লালন পালন করি।

তিনি বলেন, গরুটির নেট ওজন ১৭’শ কেজি অর্থাৎ সাড়ে ৪২ মন। আমরা শুক্রবার গরুটিকে হাটে তুলি। এর পর থেকে মানুষজনের ভিড় বেড়ে চলেছে। মানুষ জনের এমন ভিড় দেখে খুব গর্ব হচ্ছে আমাদের। আর মানুষজন ডাকে ‘হাটের রাজা’। এর পর থেকে এই গরুর নাম ‘হাটের রাজা’

‘হাটের রাজার’ ২৫ লাখ টাকা দাম হাঁকাচ্ছেন ব্যাপারী। এর কম হলে নাকি এবার আর বিক্রি করবেন না ‘হাটে রাজাকে’। আবার আগামী বছর নিয়ে আসবেন হাটে। বার্তা২৪

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ