প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শহিদুল আলমের মুক্তি চেয়ে নোয়াম চমস্কি অরুন্ধতীর বিবৃতি

ডেস্ক রিপোর্ট: আলোকচিত্রী শহিদুল আলমের মুক্তি চেয়ে বিবৃতি দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সুপরিচিত পাঁচ বুদ্ধিজীবী লেখক। তারা হলেন— ভারতীয় লেখক অরুন্ধতী রায়, মার্কিন নাট্যকার ইভ এনস্লার, কানাডীয় লেখিকা, সোস্যাল অ্যাকটিভিস্ট ও চলচ্চিত্র নির্মাতা নাওমি ক্লেইন, মার্কিন লেখক দার্শনিক নোয়াম চমস্কি এবং ভারতীয় ঐতিহাসিক সাংবাদিক বিজয় প্রসাদ। খবর: বণিক বার্তা

বিশ্বব্যাপী সুপরিচিত এ পাঁচ বুদ্ধিজীবী-লেখকের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার এ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ঢাকায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলন নথিভুক্তির পাশাপাশি এ নিয়ে বক্তব্য রেখেছেন শহিদুল আলম। এজন্য কর্তৃপক্ষ তাকে আটক করেছে। নথিভুক্তি ও সমালোচনা জীবনের মৌলিক দিক। একটি রাষ্ট্র যখন তার নাগরিকদের যা ঘটছে তা নিয়ে কথা বলার বা ক্ষোভ প্রকাশের অধিকার দিতে অস্বীকৃতি জানায়, তখন সেটি মৌলিক অধিকার লঙ্ঘনের শামিল হয়ে দাঁড়ায়।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, শহিদুল আলমকে  নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। নন্দিত এ আলোকচিত্রী এবং শিক্ষককে আটকে রাখার ঘটনায় বেশ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ারও অভিযোগ এসেছে। অথচ ২০১৪ সালে শিল্পকলা পদক দেয়ার মাধ্যমে তাকেই অনেক সম্মান জানিয়েছিল বাংলাদেশ সরকার। সে সময় বাংলাদেশের বর্তমান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দিয়েছিলেন।

বাংলাদেশ সরকারই এক সময় শহিদুল আলমকে সম্মাননা জানিয়েছিল উল্লেখ করে বিবৃতিতে আরো বলা হয়, বাংলাদেশ সরকারকেই অবিলম্বে তার মুক্তি ও সব অভিযোগ তুলে নেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। একই সঙ্গে সরকারকে শিক্ষার্থীদের সঙ্গেও সমঝোতায় আসতে হবে।

বিবৃতিতে পাঁচ লেখক-বুদ্ধিজীবী বলেন, এর ব্যতিক্রম হলে তা হবে ন্যায়বিচার, স্বাধীনতা, শিষ্টাচার ও ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদ লঙ্ঘনের শামিল।

এক টুইট বার্তার মাধ্যমে বিবৃতি প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভারতীয় ঐতিহাসিক সাংবাদিক বিজয় প্রসাদ। গতকালের ওই টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার অরুন্ধতী রায়, ইভ এনস্লার, নাওমি ক্লেইন, নোয়াম চমস্কি ও আমি একযোগে এ বিবৃতি প্রকাশ করেছি।’ টুইট বার্তার সঙ্গে বিবৃতিটিও পোস্ট করেন বিজয় প্রসাদ।

প্রসঙ্গত, ৫ আগস্ট রাতে শহিদুল আলমকে তার ধানমন্ডির বাসা থেকে আটক করে নিয়ে যায় গোয়েন্দা পুলিশ। পরদিন রমনা থানায় তার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা করে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তোলা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ