প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর চোখে সেদিন জল দেখেছি

সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি : সড়কে কোমলমতি দুই শিক্ষার্থীর হৃদয় বিদারক মৃত্যুতে চোখের জল ধরে রাখতে পারিনি, খেতে পারিনি, ঘুমাতে পারিনি। কেননা, সেটা কোনো দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু নয়। দুই বাসের প্রতিযোগিতার ফলে মৃত্য হয়েছে। তাই দুর্ঘটনা বলছি না, হত্যা বলছি। সেকারণে বাচ্চা ছেলে-মেয়েদের দাবির সাথে একমত পোষণ করে, রাস্তায় নেমে বাচ্চাদের কোলে নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থেকেছি। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চোখেও সেদিন জল দেখেছি। শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিক দেখে প্রধানমন্ত্রী শুরুতেই সব দাবি মেনে নিয়েছেন এবং সাথে সাথে যে সকল দাবি পূরণ করা সম্ভব, সেগুলো পূরণ করেছেন। কিন্তু তারপরেও কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়কের দাবি আন্দোলনে যারা কুচক্রান্তের মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে, উসকানি দিয়ে গুজব সন্ত্রাস করেছে, শিক্ষার্থীদের শিক্ষা জীবন হুমকির মুখে ফেলতে ভয়াবহ ষড়যন্ত্র করেছে এবং হত্যা, ধর্ষণের গুজব ছড়িয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা করেছে, সেই সাথে শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের উপর হামলা করে আহত করেছে, তাদের সবাইকে বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পেতে হবে।

বিএনপি গণতান্ত্রিক উপায়ে, সাংবিধানিক পদ্ধতিতে ক্ষমতার পালাবদল বিশ্বাস করে না। যেকোনো উপায়ে শুধু ক্ষমতায়ই যেতে চায়। সেকারণে বিএনপি নেতারা শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের উপর ভর করে, আন্দোলনকে উল্টো খাতে প্রভাবিত করে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে নিজেদের রাস্তা তৈরি করতে ছাত্রদলের ক্যাডার বাহিনীকে দুইভাগে রাস্তায় নামিয়ে দেয়। সেই ক্যাডার বাহিনী সন্ত্রাস করে আন্দোলনকে সহিংস করে তোলে। একদল হেলমেট পরে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করে, তাদেরকে উত্তেজিত করে সহিংস পথে ঠেলে দেয় এবং  আরেক দল স্কুল ড্রেস পরে শিক্ষার্থীদের মাঝে নেমে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে হামলা চালায়। বিএনপি চক্রান্ত করে এক ঢিলে দুই পাখি মারার চেষ্টা করেছিল।

একদিকে শিক্ষার্থী সেজেছে, অন্যদিকে হেলমেট পরে হামলাকারি। দায় পড়বে সরকারের কাঁধে। কিন্তু বরাবরের মত বিএনপির এবারের ষড়যন্ত্রও ব্যর্থ হয়েছে। সচেতন অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা বিএনপি-জামাতের গুজব-ষড়যন্ত্র রুখে দিয়েছে। তবে হামলাকারি সকল সন্ত্রাসী ও যারা ষড়যন্ত্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হত্যা, ধর্ষণ ও নানান ধরণের গুজব ছড়িয়েছে এবং নির্দেশ দিয়েছে, তাদের সবাইকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পেতে হবে। মনে রাখতে হবে, শেখ হাসিনা ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় বদ্ধপরিকর।

পরিচিত: সংসদ সদস্য /মতামত গ্রহণ: লিয়ন মীর/সম্পাদনা: মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ