প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কেনা-বেচায় প্রিমিয়ার লিগের ব্যয়ে লিভারপুল শীর্ষে

স্পোর্টস ডেস্ক : ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের নতুন মৌসুম শুরু হবে আজ থেকে। গতকালই শেষ হয়েছে ইংলিশ ফুটবলের গ্রীষ্মকালীন দলবদলের বাজার। গত ৮ বছরের মধ্যে এই প্রথমবারের মতো খেলোয়াড় কিনতে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর খরচ তুলনামূলক কমেছে। গত বছর একই দলবদলের মৌসুমে ১.৪ বিলিয়ন পাউন্ড খরচ করেছিল প্রিমিয়ার লিগের মোট বিশটি ক্লাব। এবার অঙ্কটা নেমেছে ১.২ বিলিয়ন পাউন্ডেÑবাংলাদেশি মুদ্রায় অঙ্কটা ১৩ হাজার ৮৫ কোটি টাকা। গত বছরের তুলনায় এবার ক্লাবগুলোর খরচ ২০০ মিলিয়ন পাউন্ড কমেছে।

এবার গ্রীষ্মকালীন দলবদলে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করেছে লিভারপুল। ১৬৫ মিলিয়ন পাউন্ড খেলোয়াড় কেনায় খরচ করেছে অলরেডরা। এরপর যথাক্রমে চেলসি (১২০ মিলিয়ন পাউন্ড), ফুলহাম (১০৫ মিলিয়ন পাউন্ড) ও লেষ্টার সিটি (১০০ মিলিয়ন পাউন্ড)। খেলোয়াড় কেনায় খরচকৃত অর্থের চেয়ে খেলোয়াড় বিক্রি করে বেশি অর্থ কামানো ক্লাব তিনটিÑনিউক্যাসল ইউনাইটেড, টটেনহাম হটস্পার ও ওয়াটফোর্ড। এ তিনটি ক্লাবের মধ্যে টটেনহাম তো এক কাঠি সরেস। ২০০৩ সালে দলবদলের মৌসুম চালুর পর প্রথম ক্লাব হিসেবে টটেনহাম এবার গ্রীষ্মকালীন বাজারে কোনো খেলোয়াড় কেনেনি!

অ্যাথলেটিক বিলবাও থেকে কেপা আরিজাবালাগাকে বিশ্বের সবচেয়ে দামি গোলরক্ষক বানিয়ে কিনেছে চেলসি। ইংলিশ ফুটবলে এবার এটাই সবচেয়ে দামি (৭১.৬ মিলিয়ন পাউন্ড) দলবদল। তবে আশ্চর্যের ব্যাপার হলো, গত ৮ বছরের মধ্যে এই প্রথমবারের মতো খেলোয়াড় কিনতে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর খরচ তুলনামূলক কমেছে।
তবে ভিনদেশি লিগ থেকে খেলোয়াড় কেনায় খরচের রেকর্ড গড়েছে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলো।

এবার খরচ বিচারে শীর্ষ পাঁচ দলবদলের মধ্যে চারজনই ইংল্যান্ডের বাইরের লিগের খেলোয়াড়Ñকেপা (৭১.৬ মিলিয়ন পাউন্ড), আলিসন (৬৬ মিলিয়ন পাউন্ড), জর্জিনহো (৫৩ মিলিয়ন পাউন্ড) ও নবি কেইতা (৫২.৮ মিলিয়ন পাউন্ড)। কেপা এসেছেন বিলবাও থেকে, আলিসন রোমা থেকে, জর্জিনহো নাপোলি আর নবি লাইপজিগ থেকে। আর এই হিসেবটা শীর্ষ দশে নিলে ব্যাপারটা আরও পরিষ্কার হয়ে যায়। শীর্ষ দশ দলবদলের মধ্যে আটজনই ইংল্যান্ডের বাইরের লিগের খেলোয়াড়।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের গ্রীষ্মকালীন দলবদলের বাজার শেষ হলেও স্পেন, জার্মানি ও ফ্রান্সের এখনো বাজার সরগরম। এ তিন দেশের ঘরোয়া ফুটবলে দলবদলের বাজারের মেয়াদ ফুরোবে ৩১ আগস্ট। ইতালিয়ান ফুটবলে তা শেষ হবে ১৭ আগস্ট। মার্কা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ