প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘পেয়েছি কয়েক লাখ, কোটি হলে ভালো হতো’

ডেস্ক রিপোর্ট : কোটি না, এই বিজ্ঞাপনচিত্রের জন্য কয়েক লাখ টাকা সম্মানী পেয়েছি। তবে কোটি হলে ভালো হতো। এটাও ঠিক, যা পেয়েছি তা কোটির চেয়ে কম না।’ বললেন জনপ্রিয় মডেল ও অভিনয়শিল্পী ফারিয়া শাহ্‌রিন। নতুন একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল ও শুভেচ্ছাদূত হওয়ার পর সম্মানী নিয়ে  তিনি বলেন।

‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ প্রতিযোগিতার পর মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠান বাংলালিংকের ‘কথা দিলাম’ প্যাকেজের বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হন ফারিয়া শাহ্‌রিন। এই বিজ্ঞাপনচিত্র প্রচারের কয়েক বছর পর আবার একটি মোবাইল ফোন অপারেটরের মডেল হলেন, সঙ্গে শুভেচ্ছাদূত হিসেবে এক বছরের জন্য চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেছেন। তবে এবার আর দেশে নয়, মালয়েশিয়াতে বিডি ফোন অপারেটর নামে নতুন এই প্রতিষ্ঠানের মডেল হয়েছেন। এরই মধ্যে এই বিজ্ঞাপনচিত্রের শুটিং শেষ হয়েছে।
বাংলালিংকের ‘কথা দিলাম’ প্যাকেজের বিজ্ঞাপনচিত্র টিভি চ্যানেলগুলোতে এত বেশি প্রচার হয় ও সারা দেশে অসংখ্য বিলবোর্ড স্থাপন করায় রাতারাতি পরিচিতি পেয়ে যান ফারিয়া। এরপর প্রচুর কাজের প্রস্তাব পেলেও পছন্দ না হওয়ায় ফারিয়া খুব বেশি কাজ করেননি।

ফারিয়া শাহ্‌রিন জানান, বিডি ফোন অপারেটর আজ শুক্রবার থেকে মালয়েশিয়াতে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের কার্যক্রম চালু করছে। এ উপলক্ষে কুয়ালালামপুরে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।
২০০৭ সালে ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হন ফারিয়া শাহরিন। কয়েক বছর ধরে তিনি মালয়েশিয়াতে আছেন। তিনি সেখানে এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ে মিডিয়া মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী। জানালেন, অনুরোধ আর বিজ্ঞাপনচিত্রটির ভাবনা ও মোবাইল অপারেটর প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য ভালো লাগায় বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করার পাশাপাশি তিনি প্রতিষ্ঠানটির শুভেচ্ছাদূত হয়েছেন।

ফারিয়া শাহ্‌রিন বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানটি মালয়েশিয়ার বাজারে বড় পরিসরে আসছে। বিশাল বিনিয়োগ। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের জন্য অনেক সেবার দরজা খুলে দিচ্ছে। এই যেমন কোনো গ্রাহক যদি দুর্ঘটনার শিকার হয়, তাদের সহায়তা করবে, ইনস্যুরেন্স-সেবা দেবে। কাজটা করার ক্ষেত্রে তাই সম্মানী নয়, এ বিষয়গুলো আমাকে মুগ্ধ করেছে।’ সূত্র : প্রথম আলো

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ