প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুদ্রানীতি ঘোষণাকে ডিএসই’র অভিনন্দন

মাসুদ মিয়া: বাংলাদেশ ব্যাংক চলতি অর্থবছরের (২০১৮-১৯) প্রথমার্ধের মুদ্রানীতিতে শেয়ারবাজারকে কর্পোরেট গ্রাহক ও প্রবাসী বাংলাদেশীর কাছে আরো গ্রহণযোগ্য ও বিনিয়োগে আকৃষ্ট করার ঘোষণা দিয়েছে। যা শেয়ারবাজারের স¤প্রসারণ তথা সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভ‚মিকা রাখবে। আর এই সমর্থনের কারনে বাংলাদেশ ব্যাংককে অভিনন্দন জানিয়েছেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জটি থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।
শেয়ারবাজারের উন্নয়ন ও বিকাশে সারা বিশ্বে নীতি-সমর্থন এবং প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সম্পৃক্ততার মাধ্যমে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের যে বলিষ্ঠ ভ‚মিকা থাকে, ঘোষিত মুদ্রানীতিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের সে ধরনের ভ‚মিকাই রয়েছে বলে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ বিশ্বাস করে। এই মুদ্রানীতি প্রণয়নের ক্ষেত্রে ব্যাংকিং খাতের পাশাপাশি শেয়ারবাজারকে প্রাধান্য দেয়ার জন্য এ সংশ্লিষ্ট সকলের পক্ষ থেকে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ বাংলাদেশ ব্যাংককে বিশেষভাবে অভিনন্দন জানিয়েছে।মুদ্রানীতিতে তারল্য প্রবাহ উন্নয়নের মাধ্যমে আর্থিক স্থিতিবস্থার সহায়তা করার প্রতি জোর দান করা হয়েছে। যা শেয়ারবাজারের উন্নযনের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই প্রসঙ্গে স¤প্রতিক সময়ে চীনের কনসোর্টিয়ামের কৌশলগত বিনিয়োগের ফলে শেয়ারবাজারের সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে এবং উন্নয়ন তরান্বিত হবে। আর্থিক ব্যবস্থার প্রবৃদ্ধির ভারসাম্যের জন্য বন্ড মার্কেটকে আরো বৃহত্তর ভ‚মিকা রাখতে হবে। যা বাংলাদেশ বিনিয়োগ এবং প্রবৃদ্ধির গতিপথকে উন্নিত করবে।

বিগত অর্থবছরের শেষের দিকে ব্যাংকগুলোর বাধ্যবাধকতামূলক বিধিবদ্ধ জমার অনুপাত (সিআরআর) এবং বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে রোপা সুদহার কমিয়ে আনা হয়। এছাড়া সরকারি সংস্থাসমূহের তহবিলগুলো বেসরকারি ব্যাংকসমূহে রক্ষনের সুযোগ বৃদ্ধির মাধ্যমে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর তারল্য প্রবাহে উন্নতি হয়। বৈদেশিক লেনদেনের ভারসাম্যের ঘাটতি পরিমিত রাখার জন্য রপ্তানি ও প্রবাসী বাংলাদেশীদের ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স অন্তঃপ্রবাহ জোরদার করার পাশাপাশি সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ ও শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ আকর্ষন জোরদার করার বিষয়ে গুরুত্বারোপকে ডিএসই অভিনন্দন জানিয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত