প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বল টেম্পারিং হলো ‘সাহায্য চেয়ে কান্না’র মতো: স্টেইন

স্পোর্টস ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরন ব্যানক্রফট সারাবিশ্বের কাছে সমালোচিত। কারণ ছিল বল বিকৃতি বা টেম্পারিং। তাদের এই বিতর্কিত কাজের পর সারাবিশ্বের ক্রিকেটকে হতবাক করে দিয়েছিল। সেই বিতর্কিত কা- নিয়ে কথা বললেন কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার ডেল স্টেইন। বল টেম্পারিংকে তিনিক দেখছেন ‘সাহায্য চেয়ে কান্না’ হিসেবে। কারণ বর্তমান ক্রিকেটে ব্যাট ও বলের ভারসাম্য আর নেই, প্রায় সবকিছুই ব্যাটসম্যানদের পক্ষে মনে করছেন তিনি।

কেপটাউন টেস্টে ওই কা-ের জন্য তিনজনকে ক্ষমা না করলেও স্টেইনের মত, হারিয়ে যেতে বসা রিভার্স সুইং বোলিংকে ফিরিয়ে আনতে কিছু পরিবর্তন আনার প্রয়োজনীয়তা তুলে এনেছে এই ঘটনা।
দক্ষিণ আফ্রিকার এই প্রজন্মের সেরা বোলার রয়টার্সকে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘এটা অবশ্যই হওয়া উচিত নয়। কিন্তু আপনি যদি এটা নিয়ে ভাবেন তাহলে দেখতে পাবেন এটা অনেকটা সাহায্য চেয়ে কান্নার মতো। আমাদের কিছু একটা করতে হবে।’

বর্তমান ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানরাই বিশেষ সুবিধা পায় বলে মন্তব্য করেন স্টেইন। তার ব্যাখ্যা, ‘আজকাল ব্যাটসম্যানদের পক্ষে অনেক কিছু। মাঠগুলো ছোট, দুটি নতুন বল, পাওয়ার প্লে, আগের চেয়ে ব্যাটও বড়। তালিকা বড় হতেই থাকবে।’ যোগ করলেন প্রোটিয়া পেসার, ‘একটা নো বল করবেন, তারপর ব্যাটসম্যান পাবে ফ্রি হিট। কিন্তু আমি কখনও দেখলাম না এমন একটি নিয়ম পাল্টাতে যেটা বোলারদের পক্ষে যায়।’

শন পোলকের সঙ্গে যৌথভাবে দক্ষিণ আফ্রিকার শীর্ষ টেস্ট বোলারের আসনে থাকা স্টেইনের দাবি, বল সুইং করাতে মরিয়া হয়ে ক্রিকেটাররা নিয়মের বাইরে যেতে বাধ্য হচ্ছে। তিনি বলেছেন, ‘এমন দিন হবে দুঃখজনক, যেদিন আমরা দেখবো যে আর (রিভার্স সুইং) নেই। আমি আকরামকে (ওয়াসিম) দেখে বড় হয়েছি। বেড়ে উঠেছি ওয়াকারকে (ইউনুস) দেখে। এই প্রতিভাবান বোলাররা রিভার্স সুইং বল করতেন খুব সহজে।’

কারণটা যোগ করলেন স্টেইন, ‘আজ আর আপনি তেমনটা দেখতে পান না। ফাস্ট বোলার হতে যদি কাউকে অনুপ্রেরণা হিসেবে না পান তাহলে কীভাবে অনুপ্রাণিত হবে অন্য বোলাররা। তার চেয়ে ভালো একটা বোলিং মেশিন রাখুন এবং ব্যাটসম্যান হতে চেষ্টা করুন।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত