প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোটা আন্দোলন
প্রধানমন্ত্রীকে ভুল তথ্য দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ আন্দোলনকারীদের

নিজস্ব প্রতিনিধি : মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু হয়ে এখনো চলছে। সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভুল তথ্য দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নূর।

যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নূরের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের করে আন্দোলনকারীরা। মিছিলটি কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে শুরু করে কলাভবন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, সিনেট ভবন, ভিসি চত্বর, টিএসসি, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, সায়েন্স লাইব্রেরি এবং কার্জন হল ঘুরে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যে এসে শেষ হয়।

মিছিলটির পরে আয়োজিত সমাবেশে নুরুল হক নূর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ‘কোটা সংস্কার নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ভুল তথ্য দেওয়া হচ্ছে। তাই আমরা প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করব, ছাত্র প্রতিনিধিদের নিয়ে আপনি বসুন। কেননা, আপনি এর আগে বলেছেন, গণভবন সবার জন্য উন্মুক্ত। আমরা আমাদের যৌক্তিক দাবি  উপস্থাপন করতে চাই। আমাদের দাবি ও আন্দোলনকে নিয়ে আপনার কাছে ভুল তথ্য দেওয়া হচ্ছে।’

কোটা সংস্কার প্রজ্ঞাপনের কমিটি প্রসঙ্গে নূর বলেন,‘কোটা সংস্কার করতে ১৫ দিনের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। যেটা পরবর্তী সময়ে ৯০ দিন বাড়ানো হয়েছে। কিন্তু ৯০ দিন যেতে না যেতেই নির্বাচন চলে আসবে। তখন আর কোটা সংস্কার হবে না। আমরা কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত নই। সারা বাংলার ছাত্রসমাজ এই আন্দোলনে জড়িত। দয়া করে কেউ আমাদের রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত বলে ট্যাগ দেবেন না।’

‘এ সময় আন্দোলনকারীরা তিন দফা দাবি তুলে ধরেন। দাবিগুলো হলো কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ওপর বর্বর হামলাকারী সন্ত্রাসী, ছাত্রী ও শিক্ষক লাঞ্ছনাকারীদের বিচার, গ্রেপ্তারকৃত নিরপরাধ শিক্ষার্থীদের মুক্তি এবং পাঁচ দফা আলোকে কোটা সংস্কারের সংস্কারের প্রজ্ঞাপন।