প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ক্যারিবিয়ান ‘পাওয়ার হাউজ’ নিয়ে সতর্ক সাকিব

স্পোর্টস ডেস্ক : টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ কিংবা এই ফরম্যাটের কোনও টুর্নামেন্টে যদি বাজির ঘোড়া হিসেবে আপনাকে একটি দল বেঁছে নিতে বলা হয় তাহলে কোন দলটি নিবেন? এক্ষেত্রে অনেকটা অবধারিত ভাবেই প্রথম যে দলটির কথা সকলের মাথায় আসবে সেই দলটির নাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওয়ানডে কিংবা টেস্টে যেমনই খেলুক ক্যারিবিয়ানরা, টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটের প্রসঙ্গ আসলেই যেন ভিন্ন এক উইন্ডিজ দলের চিত্র ভেসে ওঠে। যে দলের মূল ব্রতই যেন ধূমধাড়াক্কা ব্যাটিং উপহার দেয়া।

দলের বেশিরভাগ ব্যাটসম্যানই আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের মানসিকতা নিয়েই খেলতে নামেন। সুতরাং টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে মাঠে নামতে হলে যেকোনো দলকেই যে আটঘাট বেঁধে নামতে হবে তা অনেকটা ধ্রুব সত্যই বলা চলে। কেননা এই ফরম্যাটে এখনও ভয়ঙ্কর একটি দল এই ক্যারিবিয়ানরা। এবার টি টুয়েন্টি সিরিজে সেই উইন্ডিজদেরই মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। বুধবার (১লা অগাস্ট) ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি-টুয়েন্টি সিরিজের প্রথমটি খেলতে নামবে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন টাইগাররা।

উইন্ডিজদের থেকে এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের অবস্থান অনেকটা যোজন দূরত্বে এই ম্যাচে মাঠে নামার আগে বুক ভরে স্বস্তির নিশ্বাস নিতে পারেন টাইগার অধিনায়ক সাকিব। কারণ ক্যারিবিয়ানদের টি টুয়েন্টি স্কোয়াডে থাকার সম্ভাবনা খুব একটা নেই টি টুয়েন্টি ‘স্পেশালিষ্ট’ ক্রিস গেইলের।

গেইল না থাকলে বাংলাদেশের জন্য যে পোয়াবারোই হবে সেটি তো হলফ করেই বলা যায়। অধিনায়ক সাকিবের কণ্ঠেও তাই শোনা গেলো স্বস্তিরই বাক্য। তিনি বলছিলেন, ‘ওর মতো খেলোয়াড় যে দলে থাকে, তাদের বিরাট সুবিধা, না থাকলে বিরাট অসুবিধা। আমাদের জন্য অবশ্যই ভালো হবে যদি সে না খেলে।’

অবশ্য গেইল না থাকলেও উইন্ডিজরা শক্তিমত্তার দিক থেকে খুব একটা পিছিয়ে থাকবে না বলেই মনে করেন সাকিব। কেননা শুধু ব্যাটিংয়ের দিক থেকেই নয়, ক্যারিবিয়ানদের বোলিং পাওয়ার হাউজও যথেষ্ট শক্তিশালী। তবে ওয়ানডে সিরিজে ভালো খেলার কারণে সাকিব আত্মবিশ্বাস নিজেদের লাইন আপ নিয়েও,

‘ওয়ানডেতে যেহেতু ওদের বিপক্ষে ভালো বল করে আসছি, বোলারদের ভালো আত্মবিশ্বাস থাকবে, ওদের বিপক্ষে ভালো বোলিং করতে পারি। ওদের দলের দিকে যদি তাকান, যত নাম বলবেন, বেশির ভাগই ভয় পাওয়ার মতো’, বলছিলেন টাইগার অধিনায়ক।

টি-টুয়েন্টি সিরিজে ছন্দ ধরে রাখার ওপরেও জোর দিচ্ছেন টাইগার দলপতি। তাঁর বিশ্বাস এই ফরম্যাটে একবার ছন্দ হারিয়ে ফেললে আর নিজেদের ফিরে পাওয়া বেশ কঠিন হবে। আর তাই দলের মূল লক্ষ্যই থাকবে শুরুটা ভালো করা। লড়াইয়ের আভাস দিয়ে সাকিব বলেছেন,

‘ওরাও খেলোয়াড়, আমরাও খেলোয়াড়। দিনশেষে ব্যাট-বলের খেলা। চেষ্টা থাকবে যে শুরুটা ভালো করতে পারি আর ছন্দটা ধরে রাখতে পারি। টি-টোয়েন্টিতে একবার ছন্দ হারিয়ে ফেললে ফিরে পাওয়া কঠিন। এত ছোট সংস্করণ, একবার ছিটকে পড়লে ফিরে আসাটা কঠিন।’ ক্রিকফ্রেঞ্জি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত