প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৪৪ বছর পর আবারো চলচ্চিত্রে ‘মাসুদ রানা’

নিজস্ব প্রতিবেদক : সেই ১৯৭৪ সালে বিস্মরণ’ অবলম্বনে মুক্তি পেয়েছিল ‘মাসুদ রানা’ চলচ্চিত্রটি।  নায়ক-নির্মাতা-প্রযোজক মাসুদ পারভেজ এটি নির্মাণ করেছিলেন। এরপর দীর্ঘ বিরতি। অবশেষে ৪৪ বছরের সেই বিরতি ভেঙে আবারও চলচ্চিত্র নির্মিত হতে যাচ্ছে। আর কাজটি করছে দেশের শীর্ষ প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। বিষয়টি প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার আব্দুল আজিজ নিজেই এক ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানিয়েছেন।

তিনি লিখেছেন, ‘ ৬০, ৭০, ৮০, ৯০ দশকের বাংলাদেশের মানুষেরা বড় হয়েছে মাসুদ রানা পড়ে । এখনো বিশাল একটি জন গোষ্ঠী পড়ে মাসুদ রানা । এখনো নতুন মাসুদ রানার প্রথম এডিশনে ২০ হাজার কপি ছাপা হয় । এই দেশে এটি এখনো একটি অনেক বড় সংখ্যা ।

আমাদের নিজেদের কোন সুপার হিরো নেই, নেই সুপারম্যান, স্পাইডারম্যান । আমাদের কাছে সুপার হিরো মানেই মাসুদ রানা, যে –
বাংলাদেশ কাউন্টারইন্টেলিজেন্সের  এক দুর্দান্ত স্পাই  গোপন মিশন নিয়ে ঘুরে বেড়ায় দেশ-দেশান্তর । বিচিত্র তার জীবন । অদ্ভুত রহস্যময় তার গতিবিধি । কমলে-কঠোরে মিশানো নিষ্ঠুর-সুন্দর তার অন্তর। একা।  টানে সবাইকে, কিন্তু বাঁধনে জড়ায় না । কোথাও অন্যায় অবিচার দেখলে
রুখে দাঁড়ায়। পদে পদে তার বিপদ শিহরন ভয় আর মৃত্যুর হাতছানি ।

সে প্রচণ্ড রকমের দেশ প্রেমিক । একি সাথে সরল, কমল ও কঠিন । সেই বাংলার জেমসবন্ড । মাসুদ পারভেজ ভাই মাসুদ রানা সিরিজের ‘বিস্মরণ’ অবলম্বনে, ১৯৭৩ সালে মাসুদ রানা চলচ্চিত্র তৈরি করেন । আর ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৭৪ সালে । এর পর আর মাসুদ রানা হয়নি । মূলত কাজীদা কাউকে মাসুদ রানা বানানোর জন্য রাইট দেয় না, কারণ কেউ নাকি ঠিক মত রানাকে উপস্থাপন করতে পারবে না । জাজ এর শুরুতেই একটা বই এর রাইট এর জন্য যোগাযোগ করা হলে, উনি রাইট দেয়নি ।
তবে শুভ সংবাদ হলো, এখন কাজীদা জাজের উপর আস্থা রেখেছেন । উনার বিশ্বাস জাজ ঠিক মত মাসুদ রানা বানাতে পারবে । এই জন্য প্রথমে উনার ৩টি বইয়ের রাইট দিয়েছে ৫ বছরের জন্য ।
১। ধ্বংস পাহাড়
২। ভারতনাট্যম
৩। স্বর্ণমৃগ

জাজ এই ৩টি সিনেমা বানাবে ৫ বছরের মধ্যেই ।
প্রথম সিনেমার নাম ঃ
মাসুদ রানা
(ধ্বংস পাহাড়)
যার প্রাথমিক বাজেট ৫ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে ।

ধ্বংস পাহাড় – রচনা করেছিলেন ১৯৬৫ সালে । তখনকার আন্তর্জাতিক রাজনীতি ও প্রেক্ষাপট এখন থেকে ভিন্ন । তখন বাংলাদেশ পূর্ব পাকিস্তান ছিল আর ভারত কে শত্রু দেখান হয়েছে । ভারত পাগল বৈজ্ঞানিক কবির চৌধুরী সাথে মিলে, কাপ্তাই বাঁধ উড়িয়ে দিবে, যেদিন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট কাপ্তাই বাঁধে আসবেন । সেই বাঁধের সাথে প্রেসিডেন্ট ও ভেসে যাবে । কিন্তু এখন তো ভারত আমাদের বন্ধু রাস্ট । এখন তারা এটা করবে না । এছাড়া পরিবর্তন হয়েছে1 অনেক টেকনিকাল দিক । তাই কাজীদার অনুমতি নিয়ে পূর্বের গল্পের প্লট ঠিক রেখে, আমরা নতুন করে গল্পের বিন্যাস করছি । আমরা শুটিং করবো দেশে বিদেশে ।
এই শুটিং এর সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো কাপ্তাই বাঁধের শুটিং এর পারমিশন পাওয়া । কারণ, কাউকে কখনো কাপ্তাই বাঁধে শুটিং করতে দেওয়া হয়নি । এমনকি সেখানে জনসাধারণেরও প্রবেশাধিকার নেই । যাই হোক, আমরা প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করে পারমিশন নেওয়ার চেষ্টা করবো ।

এখন কথা হচ্ছে কে হবে মাসুদ রানা ?
যাকে নেবো, তাকে আগামী ৩টি মাসুদ রানা সিরিজের জন্য নেওয়া হবে, সেই অনুযায়ী চুক্তি করা হবে ।

কে হবে মাসুদ রানা, তা খুব শীঘ্রই আপনাদের জানানো হবে ।

সম্প্রতি মাসুদ রানার সাথে যুক্ত হল ইউনিলিভার । এক আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে জাজ ও ইউনিলিভার এর মধ্যে চুক্তি সাক্ষর হলো । এবং আরও কিছু ব্রান্ড খুব শীঘ্রই যুক্ত হবে ।

আর মাসুদ রানা মুক্তি দেওয়া হবে বিভিন্ন ভাষায়, বিভিন্ন দেশে একই দিনে ।।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত