প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘সংলাপের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে, সংলাপ হওয়া জরুরি’

আশিক রহমান : সংলাপের একটা সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে, সংলাপ হওয়া জরুরি বলে মনে করেন শিক্ষাবিদ ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, সংলাপ হলে নির্বাচনকালীন সময়টা নিয়ন্ত্রণে থাকে। আমরা চাই নির্বাচনি পরিবেশ সুন্দর থাকুক। সহিংসতার কোনো পুরাবৃত্তি চাই না। গণতান্ত্রিক আদর্শ বলেÑ একটা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে, যেখানে সবাই অংশগ্রহণ করবে। নির্বাচন হবে স্বচ্ছ। যতবেশি সম্ভব রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে ততই ভালো। এটাই আমার কাছে ভালো লাগে।
তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন অনেকগুলো রাজনৈতিক দলকে নিবন্ধন দেয়নি। এটা আমার কাছে খুব নেতিবাচক মনে হয়েছে। যেমন জোনায়েদ সাকির গণসংহতি আন্দেলন সব শর্ত পূরণ করার পরও নিবন্ধন দেয়নি কমিশন। এসব নিয়েও একটা সংলাপের প্রয়োজন আছে বলে মনে করি আমি। রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের বসা উচিত। নির্বাচন কমিশনের উচিত হবে নির্বাচনি মাঠটা ক্রমাগতভাবে সমতল করা, যাতে জোনায়েদ সাকির দলের মতো অনেক রাজনৈতিক দল সেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারে।
প্রক প্রশ্নের জবাবে সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, প্রত্যেককেই একটা খোলা মন নিয়ে সংলাপে বসতে হবে। তবে এখনো তো সংলাপে বসেনি। সংলাপ আদৌ হবে কি না তাও তো আমরা নিশ্চিত নই। আমরা শুধু একটা আশার সঞ্চার দেখতে পাচ্ছি। সংলাপ হয়তো হবে। সংলাপ শুরু হলে বলা যাবে সেই সংলাপ সফল হবে কি না। এখন শুধু আমরা একটা আশাবাদ ব্যক্ত করতে পারি যে সংলাপ হোক। যদি দুটি দল একসঙ্গে বসে, কথা বলে তাহলে অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। তাতে সংঘাত, সংঘর্ষ, রক্তপাত এড়ানো যায়।
তিনি বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক যে অবস্থা এখন তাতে স্থিতিশীলতা অত্যন্ত প্রয়োজন। আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশের অর্থনীতি আরও মজবুত হবে। কিন্তু স্থিতিশীলতা যদি না থাকে তাহলে তো মুশকিল। দেশের স্থিতিশীলতা ও বিশ্বে আমাদের ভাবমূর্তি উজ্জল হওয়ার স্বার্থে একটি সুন্দর সংলাপের প্রয়োজনীয়তা আমি অনুভব করি। একবার সংলাপে যদি বসেন তাহলে তারাই সিদ্ধান্ত নিবেন কী নিয়ে আলোচনা করবেন। কীভাবে আলোচনা এগোবে। সংলাপ সফলতার প্রশ্ন কেবল তখনই আসবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত