প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আযান ও ইকামতের সময় আঙ্গুল চুমু খাওয়া কী সুন্নাত ?

সাইদুর রহমান : অনেকে সুন্নাত মনে করে আযান ও ইকামতের সময় আঙ্গুল চুমু খান। এ বিষয়ে একটি হাদীস নামে প্রচার করা হয়। অথচ মুহাদ্দিসীনে কেরাম এটিকে হাদীস বলেননি। এ বিষয়ে সহীহ কোন হাদীস প্রমাণিত হয় নি। এটা লোকপ্রসিদ্ধি কথামাত্র। যেটাকে হাদীস নামে চালিয়ে দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে কয়েকটি দলিল পেশ করা হল।

এ বিষয়ে আলোচনা করতে গিয়ে প্রখ্যাত ফকীহ আল্লামা শামী (রহ.) নিজের মতামত ব্যক্ত করলেন এভাবে যে, এসব ইমাম ঝিরাহীও উল্লেখ করেছেন এবং দীর্ঘ আলোচনা করেছেন, তারপর লিখেন, এসবের [আঙ্গুল চুমু খেয়ে চোখে লাগানো] কোনো দলীলই মারফূ নয় (অর্থাৎ রাসূল সা: পর্যন্ত এর সূত্র প্রমাণিত নয়)। [ফাতাওয়ায়ে শামী-১/৩৭০]

অন্য এক প্রখ্যাত মুহাদ্দিস আল্লামা সাখাবি রহ. দায়লামী ফিরদাউস নামক কিতাবে লিখেছেন যে, হযরত আবূ বকর সিদ্দীক রা. মুআজ্জিনের মুখ থেকে “আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসূলুল্লাহ” শুনে হুবহু তা বললেন। তারপর শাহাদত আঙ্গুলের ভিতরের অংশে চুমু খেলেন এবং উভয় চোখ মাসাহ করলেন। এ কর্ম দেখে রাসূল সাঃ বললেন, যে ব্যক্তি আমার বন্ধুর অনূরূপ কাজ করবে তার জন্য সুপারিশ করা আমার উপর অপরিহার্য। আল্লামা সাখাবী (রহ) তিনি দাইলামির উক্ত লেখাটি নিজের কিতাবে এনে তার জবাবে লিখেছেনঃ “এ বর্ণনা সহীহ নয়।” [মাকাসিদুল হাসানাহ-৪৪০-৪৪১, বর্ণনা নং-১০১৯]

আল্লামা জালালুদ্দীন সুয়ূতী (রহ.) এ সম্পর্কে বলেন, অর্থাৎ “মুয়াজ্জীনের শাহাদাতে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াল্লামের নাম শোনে অংগুলদ্বয়ে চুমো খাওয়া এবং তা চুখে মুছে দেওয়ার ব্যাপারে যতগুলো রেওয়ায়েত বর্ণিত হয়েছে, সবগুলোই জাল এবং বানোয়াট।” [সুত্র, তাইসীরুল মাক্বাল, আল্লামা ইমাম জালালুদ্দিন সুয়ূতী রহঃ পৃষ্ঠা ১২৩, প্রকাশ কাল – ১৯৭৮; রাহে সুন্নাত – ২৪৩; আল্লামা সরফরাজ খান সফদর (রহ) পাকিস্থান]।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ