প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিদেশগামীর বেশির ভাগই নিজের অধিকার সম্পর্কে সচেতন নয় : মানবাধিকার কমিশন

তরিকুল ইসলাম : বিদেশগামী কর্মীরা বেশির ভাগই নিজেদেরে অধিকার সম্পর্কে সচেতন নয় বলেই দালালদের স্মরণাপন্ন হন বলে মনে করছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। সংস্থাটির চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলছেন, মানবপাচারের সবচেয়ে বড় কারণ অজ্ঞতা। আর এটাকেই বড় সুযোগ হিসেবে নিচ্ছে এক শ্রেণির মানুষ।
রোবাবার দুপুরে রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম আয়োজিত ‘মানবপাচার ও অনিয়মিত অভিবাসন’ পরিস্থিতি নিয়ে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমনটাই জানান কাজী রিয়াজুল হক। ব্র্যাকের স্ট্র্যাটেজি কমিউনিকেশনস অ্যান্ড এম্পাওয়ারমেন্ট কর্মসূচির পরিচালক আসিফ সালেহ আলোচনার সভাপতিত্ব করেন।
এতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ডিজি (পশ্চিম ইউরোপ ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন) মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খাস্তগীর, সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি মো. শাহ আলম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (রাজনৈতিক ও আইসিটি) মোহাম্মদ শামসুর রহমান, আন্তর্জাতিক অভিবাসী সংস্থার (আইওএম) বাংলাদেশের চিফ অব মিশন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বাংলাদেশের চ্যার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্সসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিরা।
মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, দেশে মানবপাচারের ৪ হাজার মামলার মধ্যে মাত্র একটি মামলার আসামির শাস্তি হয়েছে। এটিকে উদ্বেগজনক। মামলা দ্রুত শেষ করার জন্য যা যা দরকার করতে হবে। একজন কর্মীকে বিদেশে যেতে হবে বৈধ উপায়ে। যে দেশে যাবে সে দেশের ভাষা জানা থাকা উচিৎ।
আলোচনায় অংশ নিয়ে অন্য বক্তারা বলেন, আইন থাকলেও তার প্রয়োগ বা কার্যকারিতা না থাকায় মানবপাচারের ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা এখনও ধরা-ছোঁয়ার বাইরে। ২০১২ সালে মানবপাচার আইন হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত চার হাজার ১৫২টি মামলা হলেও শাস্তির ঘটনা হাতে গোনা। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, এসব মামলার অধিকাংশই বিচার হয়নি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ