Skip to main content

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ পাচ্ছে ২২তলা ভবন

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম মহানগরের পরীর পাহাড়ের উঁচু টিলায় পুলিশের জন্য অত্যাধুনিক ২২ তলা ভবন নির্মিত হচ্ছে। ভবনটি নির্মাণের জন্য শিগগির টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রশাসন) মাসুদ উল হাসান। তিনি বলেন, ভবনটির নির্মাণের জন্য সিএমপির সদর দপ্তরের যাবতীয় কার্যক্রম লালদীঘি থেকে নাসিরাবাদ দামপাড়া পুলিশ লাইন্সে স্থানান্তর করা হয়েছে। শনিবার সকাল থেকে অফিসের যাবতীয় আসবাব ও কাগজ পুলিশ লাইন্সের অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। রোববার সকাল থেকে সিএমপির কাজ সেখান থেকে পরিচালিত হবে। নগরীর লালদীঘি এলাকায় জেলা প্রশাসকের নিয়ন্ত্রণে থাকা সরকারি খাস জায়গার ওপর ছোট একটি দ্বিতল ভবনে চলছিল সিএমপির কার্যক্রম। ৬০ লাখ নগরবাসীর এ নগরীতে বর্তমানে চারটি জোনে বিভক্ত হয়ে থানা রয়েছে ১৬টি। ফাঁড়ির সংখ্যা ৫০। আর পুলিশ সদস্যের সংখ্যা প্রায় ছয় হাজার। তিনি জানান, নতুন ২২ তলা ভবনের নকশা অনুমোদন হয়েছে। অন্যান্য কাজও শেষ হয়েছে। টেন্ডার প্রক্রিয়া আগামী সপ্তাহের মধ্যে শুরু হবে। এ কারণে সিএমপির সদর দপ্তরের সব কার্যক্রম পুলিশ লাইনে স্থানান্তর করা হয়েছে। ভবন নির্মাণকাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত সিএমপির সকল কাজ দামপাড়া পুলিশ লাইন্স থেকে পরিচালিত হবে। তিনি জানান, প্রতিষ্ঠার ৪০ বছর পর চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) ২২ তলা বিশিষ্ট ভবন পাচ্ছে। ধাপে ধাপে এ ভবন নির্মিত হবে। প্রথম অবস্থায় সপ্তমতলা পর্যন্ত নির্মিত হবে। এজন্য আগামী তিন বছর সিএমপির সদর দপ্তর স্থানান্তরিত হচ্ছে দামপাড়া পুলিশ লাইন্সে। সেখানেও একটি ভবন করা হয়েছে। রোববার থেকে সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান, অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) কুসুম দেওয়ান, অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগমসহ সদর দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সেখানে অফিস করবেন। মাসুদ উল হাসান বলেন, পরীর পাহাড়ে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন একটি ভবনে সিএমপি হেডকোয়ার্টার প্রতিষ্ঠা পাবে।

অন্যান্য সংবাদ