Skip to main content

কে হচ্ছেন সিসিক মেয়র কামরান না আরিফ?

মোকলেছুর রহমান, সিলেট : সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনের ব্যালটে সাত মেয়র প্রার্থীর প্রতীক থাকছে। তবে একজন প্রার্থী নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোয় প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন ছয়জন। কিন্তু ভোটার, সাধারণ মানুষ, গণমাধ্যম সর্বত্র আলোচনার সর্বাগ্রে দুই মেয়র প্রার্থী; আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান এবং বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরী। বাকি চার প্রার্থী আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে নিজেদের নিয়ে আসতে পারেননি। সংশ্লিষ্ট সকলের ধারণা, সিসিক নির্বাচনে কামরান অথবা আরিফের মধ্য থেকে কেউই মেয়র নির্বাচিত হবেন।এবার সিসিকের চতুর্থ নির্বাচন। নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরী, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের মোয়াজ্জেম হোসেন খান, সিপিবি-বাসদের আবু জাফর, স্বতন্ত্র থেকে বিএনপির বিদ্রোহী বদরুজ্জামান সেলিম, জামায়াতের এহসানুল মাহবুব জুবায়ের ও এহসানুল হক তাহের। তবে দলের প্রার্থী আরিফকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সেলিম। সিসিকের গেল তিন নির্বাচনের পরিসংখ্যান ছিল আওয়ামী লীগ ২, বিএনপি ১ বার জয়ী হয়েছে। যদিও ওই তিন নির্বাচন দলীয় ব্যানারে অনুষ্ঠিত হয়নি, তথাপি আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতারাই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। প্রথম দুবার আওয়ামী লীগ নেতা বদর উদ্দিন আহমদ কামরান এবং সর্বশেষ নির্বাচনে বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরী মেয়র নির্বাচিত হন।কামরানের এটা টানা চতুর্থবারের মতো মেয়র পদে নির্বাচন; বিপরীতে আরিফের টানা দ্বিতীয়। এবারের নির্বাচনেও এ দুই নেতাই আছেন মূল আলোচনায়।গত ১০ জুলাই প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়ার পর থেকে ২৮ জুলাই (শনিবার) দিবাগত মধ্যরাত পর্যন্ত প্রচারণায় ব্যাপক সক্রিয় ছিলেন কামরান ও আরিফ। নগরীর একপ্রান্ত থেকে অপরপ্রান্ত পর্যন্ত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ছুটে বেরিয়েছেন তারা। দিয়েছেন নানা প্রতিশ্রুতি। উভয় প্রার্থীই দিয়েছেন চমকপ্রদ নির্বাচনী ইশতেহার।৩৩ দফা নির্বাচনী ইশতেহারে কামরান বলেছেন, তিনি নির্বাচিত হলে সিলেটকে ডিজিটাল নগরী হিসেবে গড়ে তুলবেন।অন্যদিকে ১৩ দফা নির্বাচনী ইশতেহারে আরিফ বলেছেন, তিনি জঞ্জালমুক্ত পরিচ্ছন্ন নতুন সিলেট গড়তে চান।নির্বাচনী প্রচারণায় কামরান জীবনের শেষ নির্বাচন উল্লেখ করে ভোটারদের সহানভূতি আদায়ের চেষ্টা করেছেন। বিপরীতে আরিফ ব্যাপক উন্নয়নের বিষয়টি সামনে রেখে আবারও জনরায় নিজের পক্ষে আনার চেষ্টা চালিয়েছেন। নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে উভয় নেতাই শতভাগ আশাবাদী। এ প্রসঙ্গে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, আমি সবসময়ই নগরবাসীর পাশে ছিলাম, আছি। নগরবাসীই আমাকে এ পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন। এবারের নির্বাচনে প্রচারণায় সর্বস্তরের মানুষের ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। আমার দলও ঐক্যবদ্ধ রয়েছে। সবমিলিয়ে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, নগরবাসী আমার সাথে আছেন। তারা আমাকে সমর্থন জানিয়েছেন, দোয়া করেছেন। বিগত সময়ে নগরবাসীর স্বার্থে উন্নয়ন করেছি, তাই তারা আমাকেই মেয়র হিসেবে আবারও দেখতে চান।

অন্যান্য সংবাদ