প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুর কবলে ফিশিং ট্রলার, অাহত ৭

মহেশখালী প্রতিনিধি: বঙ্গোপসাগরের ১৪ বিয়া নামকস্থানে একটি ফিশিং ট্রলারে ডাকাতি হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। ডাকাত দল ঐ ট্রলারের থাকা মাঝিমাল্লাদের গুলিবিদ্ধ করেছে বলে জানা গেছে।

ডাকাতের গুলিতে আহত মাঝি মাল্লারা মহেশখালী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে অাসলে ৬ জনকে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

অাহত জেলেরা জানিয়েছেন, ছোট মহেশখালী জাফর মেম্বারের পুত্র রেজাউল করিম ও সোনামিয়া মেম্বারের মালিকানাধীন এফবি অাল মদিনা ২১জন মাঝিমাল্লা নিয়ে সাগরের মাছ ধরেত যাই ।

২৮ জুলাই শনিবার ফিশিং ট্রলারটি অনুমান বিকাল ২টায় বঙ্গোপসাগরের ১৪বিয়া নামক স্থানে পৌছলে কিছু দূর থেকে অপর একটি ফিশিং বোট অাল মদিনা নামক ফিশিং ট্রলারের নিকট কিছু বরফ ধার চেয়ে নিকটে অাসে।

এ সময় তারা ধারনা করে এরা জলদস্যু। তাদের ট্রলারটি দ্রুত মেশিনের গতি বাড়িয়ে পালাতে চেষ্টা করলে জলদস্যুরা মাঝিমাল্লাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। ডাকাত দল জেলেদের আহত করে টাকা, মোবাইল ট্রলারে থাকা প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে নেয়।

ডাকাতের গুলিতে অাহতরা হলেন, ছোট মহেশখালীর মুদিরছড়া গ্রামের সোলতান অাহাম্মদের পুত্র ছৈয়দ মাঝি, মো. ছিদ্দিকের পুত্র অাব্দুল জলিল, মৃত খোরশেদ অালমের পুত্র ছৈয়দ হোছন,ছৈয়দ মাঝির পুত্র মো. শাহেদ, মো. ইউনুচ এর পুত্র রেজাউল করিম, অাব্দুল মোনাফের পুত্র মেহেদী হাসান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ