প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তুলে নিয়ে শিশুকে ধর্ষণ

ডেস্ক রিপোর্ট : নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে এক শিশুছাত্রীকে বাড়ির উঠান থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে থানায় মামলা করা হয়েছে।

উপজেলার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা শনিবার সকালে সম্পন্ন করা হয়েছে।

নির্যাতিতা শিশু ছাত্রীর মা বলেন, একই এলাকার মো. মুন্সির ছেলে মো. রমজান স্কুলে যাওয়া-আসার পথে তার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করতো। গত ১০ জুলাই রাত সাড়ে ৭টার দিকে ঘরের বাইরে মেয়ে ফোনে কথা বলার সময় উঠান থেকে রমজান জোরপূর্বক মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববর্তী বাবুল মেম্বারের মাছের প্রজেক্টের পাড়ে নিয়ে যায়। এ সময় রমজান তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে ধর্ষণ করে। মেয়েটির চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এলে পালিয়ে যায় ধর্ষক রমজান।

এ ঘটনায় এলাকার সালিশদার সবুজ, শিপন ও চাপা বিচার করে দেবে বলে থানায় মামলা করতে না দিয়ে কালক্ষেপণ করে। ধর্ষণের আলামত নষ্ট করে দেয়। এরই মধ্যে ধর্ষক রমজান তার বাবা-মা, ভাই ও কয়েকজন গ্রাম্য সালিশের সহযোগিতায় এলাকা থেকে চট্টগ্রাম পালিয়ে যায়। পরে নির্যাতিতা ছাত্রীর পরিবার নিরুপায় হয়ে থানায় অভিযোগ দেয়। পুলিশ ২৭ জুলাই রাতে ধর্ষণের মামলা নেয়।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য মো. মানিক জানান, পাশবিক নির্যাতনের শিকার স্কুলছাত্রীর খালা শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে বিষয়টি তাকে অবহিত করেন।

মামলার তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই তাজুল ইসলাম বলেন, আসামি রমজানকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।
সূত্র : জাগো নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ