প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাকিস্তানকে ২০০ কোটি ডলার ঋণ সহায়তা দিতে সম্মত চীন

নূর মাজিদ: পাকিস্তানের অর্থনীতির এখন বেহাল দশা। বিশেষ করে দেশটির বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ (ফরেক্স) নিতান্তই অপ্রতুল, মাত্র ৯ বিলিয়ন ডলার। যা দিয়ে দেশটির একমাসের আমদানি ব্যয় মেটানোও কষ্টকর। এমন পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের সাহায্যে এগিয়ে এসেছে তার পরীক্ষিত মিত্র চীন। পাকিস্তানি রিজার্ভকে আংশিক চাপমুক্ত করতে ২০০ কোটি ডলার জরুরী ঋণ সহায়তা দিতে রাজী হয়েছে চীনা সরকার। পাকিস্তানের পরবর্তী নির্বাচিত সরকারের জন্য যা অত্যন্ত আনন্দের খবর। কেননা চীনের এই জরুরী ঋণ, নয়া সরকারের দায়িত্ব গুছিয়ে নেবার পূর্বে তাদের সাময়িকভাবে দুশ্চিন্তামুক্ত রাখবে।

চীনের এই নতুন ঋণকে একটি দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ভিত্তিতে জরুরী সাহায্য বলেই উল্লেখ করেছে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংক, স্টেট ব্যাংক অব পাকিস্তান। ইতোমধ্যেই, মোট ঋণের ১ বিলিয়ন ডলার পাকিস্তানের কেন্দ্রিয় ব্যাংকের হিসাবে পাঠিয়েছে চীনা কেন্দ্রীয় ব্যাংক। আগস্ট মাসে প্রকাশিত কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা মজুদের তথ্যতে এই ঋণের অর্থ সংযুক্ত হবে। ফলে, আগস্টে পাকিস্তানের মোট ফরেক্স রিজার্ভ হবে মোট ১০ বিলিয়ন ডলার।

এদিকে এই ২ বিলিয়ন ডলার ঋণ ফরেক্স রিজার্ভের পাশাপাশি পাকিস্তানি রুপিকেও কিঞ্চিৎ সহায়তা করবে। বিশেষ করে যখন মার্কিন ডলারের বিপরীতে পাকিস্তানি রুপির রেকর্ড দরপতন অব্যাহত রয়েছে। এমন সময় ফরেক্স রিজার্ভে অতিরিক্ত ২ বিলিয়ন ডলার দেশটির মুদ্রাকে আরো দরপতনের হাত থেকে কিছুটা হলেও রক্ষা করবে। ফলে কিছুটা সময় পাবে ইমরানের সরকার। এই মুহূর্তে অর্থনৈতিক নীতি প্রণয়নের পূর্বে এই বাড়তি সময়টুকুই দরকার পাকিস্তানের নতুন সরকারের। দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ