প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

ডেস্ক রিপোর্ট : নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগে তিন যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আজ শুক্রবার দুপুরে তাদেরকে ওই পৌরসভার মির্জাপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- চাটখিল পোরসভার মির্জাপুর এলাকায় চদ্র ভূষণের ছেলে পলাশ দেবনাথ (৩০), একই এলাকার মোশারফ হোসেনের ছেলে মনির হোসেন (২৪) ও শহীদ উল্লাহর ছেলে হেলাল (৩০)। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।

জানা যায়, গত ৬ জুলাই রাতে চাটখিল উপজেলার একটি গ্রামের নবম শ্রেণির পড়ুয়া এক কিশারীকে পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে তাদের ঘরে গিয়ে মির্জাপুর এলাকার চন্দ্র ভূষণের ছেলে ও স্থানীয় মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি পলাশ চন্দ্র দেবনাথ জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর পলাশ চলে যায়। প্রায় ১ ঘণ্টা পর পলাশ পুনরায় ওই কিশোরীর ঘরে ডুকে তাকে ফুসলিয়ে বাইরে নিয়ে আসে। এরপর তার সাথে থাকা বন্ধু মনির হোসেনকে দিয়ে পুনরায় ধর্ষণ করায় এবং তার অপর বন্ধু হেলাল ধর্ষণের ঘটনা মোবাইল ফোনে ধারণ করে।

এর পরের দিন ধারণকত ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে কিশোরীর পরিবারের কাছ ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। কিশোরীর পরিবার দরিদ্র হওয়ায় এতো টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে।

বিষয়টি স্থানীয় লোকজন জানতে পেরে চাটখিল থানা পুলিশকে জানায়। খবর পেয়ে চাটখিল থানা পুলিশ শুক্রবার দুপুরে মির্জাপুরে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিন যুবককে গ্রেফতার করে।

চাটখিল থানার ওসি মো. ইমাউল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।
সূত্র : পরিবর্তন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ