প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কয়লা চুরির অভিযোগ নিয়েই হজের ছুটি পেলেন আওরঙ্গজেব

স্বপ্না চক্রবর্তী : বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির কয়লা চুরির ঘটনায় অভিযুক্ত আওরঙ্গজেবকে ৪২ দিনের ছুটি দিয়েছে পেট্রোবাংলা। মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এই কর্মকর্তাকে হজের ছুটি দেওয়ায় তার স্থলে পেট্রোবাংলার মাইন অপারেশন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) জাবেদ চৌধুরীকে এ অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পেট্রোবাংলার এক কর্মকর্তা জানান, এদিন দুপুরে আওরঙ্গজেবের হজে যাওয়ার ছুটির অর্ডার হয়েছে। এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় বলছে, পেট্রোবাংলার তদন্ত কমিটিতে আওরঙ্গজেবের নাম থাকলেও দুদকের তদন্ত কমিটিতে তার নাম আসে নি। তাই তার ছুটিতে কোনো বাঁধা নেই।

পেট্রোবাংলা গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে কয়লা দুর্নীতিতে প্রতিষ্ঠানটির যে চার সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণের কথা উঠে এসেছে তার মধ্যে আওরঙ্গজেব অন্যতম। তিনি এর আগে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন। খনি দুর্নীতির তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার একদিনের মাথায় এই সিদ্ধান্তকে শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা হিসেবে মনে করছেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানিখাত বিশেষজ্ঞরা। এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ বিশেষজ্ঞ ড. ইজাজ হোসাইন আমাদের অর্থনীতিকে বলেন, পেট্রোবাংলার নিজেদের তদন্তেই যদি আওরঙ্গজেবের নাম উঠে এসেছে তাহালে তো তার উচিত ছিলো তার কাছ থেকে আরও তথ্য বের করা। তা না করে তাকে টেকনিক্যালি ছুটিতে পাঠিয়ে দিচ্ছে। আমাদের খুবই আশ্চর্য লাগছে রাষ্ট্রের সেবায় নিয়োজিত একটি প্রতিষ্ঠান কিভাবে এরকমটা করতে পারছে? এখানে যদি ইউরেনিয়াম হতো? ১ কেজি ইউরেনিয়াম কেউ চুরি করে নিয়ে গেলে বিষয়টা কোন পর্যায়ে যেতো? তবু আমরা আশা করছি এই ঘটনার সাথে জড়িতরা সাজার আওতায় আসবে।

প্রসঙ্গত, পেট্রোবাংলা গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে খনি দুর্নীতির তদন্তে বড়পুকুরিয়ার কয়লা খনির চার ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া। ওই তালিকায় আওরঙ্গজেব ছাড়াও অভিযুক্ত অপর ৩জন হচ্ছেন খনির সদ্য সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবীব উদ্দিন আহমেদ, সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিনুজ্জামান ও কামরুজ্জামান। দায়ীদের মধ্যে তিনজনই এখন সরকারি চাকরিতে বহাল রয়েছেন উল্লেখ করে পেট্রোবাংলার এক কর্মকর্তা জানান, এরমধ্যে মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বে রয়েছেন আওরঙ্গজেব আর রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস কোম্পানি আরপিজিসিএল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামারুজ্জামান। সদ্য সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিব উদ্দিন আহমেদকে সরিয়ে পেট্রোবাংলায় সংযুক্ত করা হয়েছে। যার বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ রয়েছে, সেই আমিনুজ্জামান এখন কয়লা উত্তোলনকারী চায়না ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করছেন। যদিও তিনি খাতা-কলমে তিনি ওই প্রতিষ্ঠানের কেউ নন। বেনামেই তিনি ওই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পৃক্ত রয়েছে বলে জানা যায়।

এর আগে ২৪ জুলাই কয়লা দুর্নীতির বিষয়টি তদন্তের স্বার্থে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির চার কর্মকর্তাকে দেশত্যাগ করতে না দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে ইমিগ্রেশনে চিঠি পাঠায় দুর্নীতি দমন কমিশন। সে তালিকাতেও খনির সদ্য সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিব উদ্দিন আহমেদের নাম রয়েছে। তালিকার অপর তিন কর্মকর্তা হচ্ছেন বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির জিএম (প্রশাসন) আবুল কাশেম প্রধানিয়া, জিএম (কোল মাইনিং), আবু তাহের মোহাম্মদ নুরুজ্জামান চৌধুরী এবং ডিজিএম (স্টোর) একেএম খাদেমুল ইসলাম।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ