Skip to main content

রিটেন, ভাইভা অনুসারে চূড়ান্ত মেধা তালিকা তৈরি করা হয়

মেহেদী হাসান: কোটা অবশ্যই দরকার আছে। তা না হলে আপনি উপজাতি,প্রতিবন্ধী,এদেরকে কি করবেন? আর যাদের জন্য আমাদের এই দেশটা স্বাধীন হলো তাদেরকে কি করবেন? বলা হয় লক্ষ লক্ষ ভুয়া মুক্তিযোদ্ধায় দেশ ছেয়ে গেছে। বাস্তবতা আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর মাত্র ১৩ হাজার মুক্তিযোদ্ধা সনদ দেয়া হয়। যার মধ্যে সাড়ে ছয় হাজার পরবর্তীতে ভূয়া হিসেবে বাতিল করা হয়। ভূয়া সার্টিফিকেটধারী সরকারি চাকুরেদের চাকুরিচ্যুত করা হয়। এরপর ২০১৩ সাল থেকে মুক্তিযোদ্ধা সনদ দেয়া স্থগিত করা হয়। যদিও লক্ষ লক্ষ আবেদন পড়তেই থাকে এবং যার অধিকাংশই ভূয়া। ৫৬% কোটা, ৪৪% মেধা। বাস্তবতার এই তত্ত্ব প্রচারের সময় বাস্তবতা এড়িয়ে যাওয়া হল। একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান যখন ভার্সিটিতে চান্স পায়, তখন সে একই সাথে মুক্তিযোদ্ধা কোটা এবং জেলা কোটার কিছু অংশও পূরণ করে, একজন নারী যখন চান্স পায় তখন সে শুধু নারী কোটাই না বরং জেলা কোটারও কিছু অংশ পূরণ করে, এভাবে এক বা একাধিক কোটার সাথে ওভারল্যাপ করায় শেষ পর্যন্ত বাস্তবিকভাবে কোটার প্রয়োগ ২৫%-৩০% এ নেমে আসে। অর্থাৎ মেধায় প্রায় ৬৫% থেকে ৭৫% নিয়োগের বাস্তবতা এড়িয়ে যাওয়া হয়। মুক্তিযুদ্ধ কোটাধারীরা টেনেটুনে ৩৩% নম্বর নিয়ে পাশ করেই চাকুরি পাচ্ছে অথচ মেধাবীরা ৮০% নম্বর পেয়েও চান্স পাচ্ছে না। প্রিলি, রিটেন এবং ভাইভায় পাশ করার পরই কেবল চূড়ান্ত মেধা তালিকা তৈরি করা হয়। এমনকি ভাইভাতেও কোটা নেই এবং ন্যুনতম ৫০% মার্ক না পেলে কেউ ভাইভায় পাশ করবে না। তাহলে খেয়াল করেন, একই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে প্রিলি, রিটেন এবং ভাইভা যারা পাশ করে তারাই কেবল কোটা প্রয়োগের জন্য বিবেচিত হয়। এখানে আরও মনে রাখা দরকার প্রায় ৪ লক্ষ পরিক্ষার্থীর মধ্যে ১০ হাজারের মত প্রিলিতে পাশ করে, রিটেনে আনুমানিক তার অর্ধেক ভাইভায় আবার তার অর্ধেকের বেশি মেধা তালিকায় থাকে। প্রথম ২-৩ হাজারের মধ্যে থাকে কেবল তাদের জন্যই কোটা প্রয়োগ হয়। এদের কাউকে কি আপনি মেধাহীন বলতে পারেন? আরও গুরুত্ববহ ব্যাপার হল এখানে যাদের কোটায় নিয়োগ হবে তাদের বড় একটা অংশ হয়ত কোটা ছাড়াও নিয়োগ পেত। আরও গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হল কোটার প্রয়োগ ক্যাডাদের জন্য। রিটেনে যারা পাশ করছে, তারা ক্যাডার না হলেও অন্যান্য ক্যাডাররা সরকারি চাকুির পাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে এক পক্ষও চাকুরি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে না। মেধাতলিকার সকলেই সরকারি চাকুরি পাচ্ছে। ৩৩% আর ৮০% গুজব নিয়ে যারা আন্দোলন করছে, তাদের কি সমর্থন করা যায়? পৃথিবীর আর কোথাও এমন কোটা নাই। বাস্তবত পৃথিবীর সব দেশেই ওয়ার ভেটেরানদের রাষ্ট্রীয় সম্মান ও নানাবিধ সুযোগ সুবিধা দেয়া হয়। এছাড়াও জাপান থেকে শুরু করে পৃথীবির অন্যান্য দেশে বিভিন্ন ধরণের কোটা আছে। আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতেই রাজ্যভেদে ৬০-৭০% কোটা আছে। পাকিস্থানে সেটা আরো বেশি ৯২.৭%।পরিচিতি : শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় / মতামত গ্রহণ : তাওসিফ মাইমুন/ সম্পাদনা :ফাহিম আহমাদ বিজয়

অন্যান্য সংবাদ