প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আজ ঢাকায় শুরু হচ্ছে দুই বাংলার বাউল উৎসব

এ কে এম শফিকুল ইসলাম: বাংলায় লোকসাহিত্য একটি বড় অংশ জুড়ে রয়েছে বাউল সম্প্রদায়ের গান। এই গানের মাধ্যমে বাউলরা মূলত তাদের দর্শন ও মতামত প্রকাশ করে থাকে। এমন প্রেক্ষাপটে দুই বাংলায় বাউল গান নিয়ে আজ ঢাকায় উৎসব শুরু হচ্ছে। সম্প্রতি এই বাউল গানকে সবুল সংস্কৃতিতে আরও গ্রহণযোগ্য করাতে বিভিন্ন সংমিশ্রন ফিশন করতে দেখা যাচ্ছে। এ বিষয়টি শিল্পীরা কেমন দৃষ্টিতে দেখছেন।

শিল্পী মাকসুদুল হক এর নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভারতে বাউল সংগীত সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয়। সাধারণ মানুষের মাঝে আরও সুন্দরভাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাউল সংগীতকে প্রসারিত করা যেতে পারে।

বাউল সংগীতকে টিকিয়ে রাখতে কি কি প্রয়োজন জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেশি বেশি বাউল গানের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা। বাউল গানের জন্য বাউল গানের মুল দর্শন ঠিক রাখা, বাউল গান গাওয়ার জন্য যে সকল ইন্সট্রুমেন্ট যেগুলোর প্রয়োজন ব্যবস্থা করা। সাধারণ মানুষ যেন বাউল গানের বাদ্যযন্ত্র ব্যবহার করতে পারে। আশপাশে বাদ্যযন্ত্র কিনতে পাওয়া যায়।

বাউল সংগীতকে ইদানিং আমরা দেখতে পাচ্ছি ভিন্ন আঙ্গিকে গাওয়া হচ্ছে। গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর জন্য বিষয়টা আপনি কিভাবে দেখছেন?

এ প্রশ্নের জবাবে শিল্পী মাকসুদুল হক বলেন,  বাউল সংগীত সাধারণ মানুষ পছন্দ করে সেটাই বড় কথা। কিন্তু বাউল গানের দর্শন ঠিক রেখে যে কোন ভাবেই গান গাওয়া যেতে পারে। সাধারণ মানুষের নিকট পৌঁছে দেওয়া সেটা যে কোন ভাবে হোক সে বিষয়ে আমার কোন আপত্তি নাই।

আপনি মনে করেন কী বাউল গান সমাজে মানুষের কিরকম প্রভাব বিস্তার করবে ?
এর জবাবে তিনি বলেন, বাউল গান সাধারণ মানুষের মনের কথা বলে। তাই সাধারণ মানুষের কথা ভেবে বাউল গানের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা। সূত্র : বিবিসি বাংলা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ