প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কল্যাণপুরে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান, চার্জশিট দেয়া হয়নি ২ বছরেও

সুজন কৈরী : রাজধানীর কল্যাণপুরে জঙ্গি আস্তানায় অভিযানের দুই বছর পরও মামলার চার্জশিট দিতে পারেনি ঘটনার তদন্তকারী সংস্থা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

২০১৬ সালের ২৫ জুলাই রাতে কল্যাণপুরের ‘জাহাজ বিল্ডিং’ খ্যাত তাজ মঞ্জিলে ‘অপারেশর ষ্ট্রম-২৬’ অভিযান চালায় পুলিশ। শ্বাসরুদ্ধকর সেই অভিযানে ৯ জন দুর্ধর্ষ জঙ্গি নিহত হয়। তারা হলো আব্দুল্লাহ, আবু হাকিম নাইম, তাজ-উল-হক রাশিক, মতিয়ার রহমান, আকিফুজ্জামান খান, সেজাদ রউফ অর্ক, জোবায়ের হোসেন ও রায়হান কবির ওরফে তারেক ওরফে ফারুকসহ ৯ জন। এদের মধ্যে একজনের পরিচয় এখনও শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। ২০১৬ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর বেওয়ারিশ হিসেবে ৯ জনের লাশ আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামের মাধ্যমে জুরাইন কবরস্থানে দাফন করা হয়। অভিযানের পর জাহাজ বিল্ডিং পুলিশ সিলগালা করে দেয়। এক বছর পর পুলিশ বাড়িটি খুলে দেয়।

পুলিশের অভিযানের পর মিরপুর থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) শাহজালাল আলম বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামী করে মামলা করেন। আসামীরা হলেন, রাকিবুল হাসান ওরফে রিগ্যান, তামিম আহম্মেদ চৌধুরী, ইকবাল, রিপন, খালিদ, মামুন, সারোয়ার জাহান মানিক, জুনায়েদ খান, বাদল ও আজাদুল ওরফে কবিরাজ। এদের মধ্যে অভিযান চলাকালে রাকিবুল ওরফে রিগ্যানকে আহত অবস্থায় পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট আটক করে। রাকিবকে কয়েক দফা রিমান্ডে নিয়ে পুলিশ চাঞ্চল্যকর তথ্য উদঘাটন করেছে। রাকিবের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ ২৭ আগস্ট নারায়ণগঞ্জের পাইকপাড়ায় জঙ্গি বিরোধী অভিযান চালানোর সময় নব্য জেএমবির প্রধান তামিম আহমেদ চৌধুরীসহ ৩ জন নিহত হয়। ৮ অক্টোবর আশুলিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে একটি ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে নিহত হন সারোয়ার জাহান মানিক। বর্তমানে মামলাটি তদন্ত করছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

সিটিটিসি সূত্র জানায়, মামলায় এখন পর্যন্ত ১২ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এরা হলেন রাকিবুল ওরফে রিগ্যান, সালেহ উদ্দিন কামরান, আব্দুর রউফ প্রধান, মওলানা আবুল কাশেম ওরফে বড় হুজুর, আহমেদ আজওয়াত অমি, আব্দুস সবুর খান ওরফে সোহেল মাহফুজ ওরফে হাতকাটা মাহফুজ, আসলাম হোসেন র‌্যাশ, হাদিসুর রহমান সাগর, আকাশ, হাবিবুল্লাহ, কবিরুল ও মিজানুর। এই ঘটনায় ইকবাল, রিপন, খালিদ, মামুন, জুনায়েদ খান, বাদল ও আজাদুল ওরফে কবিরাজ পলাতক রয়েছেন। এসব আসামীদের মধ্যে রিগ্যান, সোহেল মাহফুজ, সাগর, রিপন ও খালিদ হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার মামলার চার্জশিটভূক্ত আসামী।

সিটিটিসির উপ-কমিশনার মুহিবুল ইসলাম খান সাংবাদিকদের বলেন, মামলার তদন্ত কার্যক্রম অনেকটা গুছিয়ে আনা হয়েছে। শিগগিরই চার্জশিট দেয়া হবে।

এ‌দি‌কে অ‌ভিযা‌নের পর প্রায় একবছর বা‌ড়ি‌টি সিলগালা থাকার পর আবা‌রো বসবাস শুরু ক‌রে‌ছেন বা‌সিন্দারা। ত‌বে দুই বছর আ‌গের সেই বিভী‌ষিকাময় রা‌তের স্মৃ‌তি এখ‌নো তা‌ড়ি‌য়ে বেড়ায় তা‌দের।

অপর‌দি‌কে ঘটনার পর থে‌কে এলাকাবাসী অ‌নেক স‌চেতন হ‌য়ে‌ছেন। তারা নাম প‌রিচয় না জে‌নে কাউ‌কে বা‌ড়ি ভাড়া দি‌চ্ছেন না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ