প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কয়েন দিয়ে ২৫ হাজার টাকা পরিশোধ, গুনতে আদালত মুলতবি

ডেস্ক রিপোর্ট:  ডিভোর্স দেয়া স্ত্রীকে কয়েন দিয়েই ভরণপোষণের অর্থ দিলেন পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের এক আইনজীবী। আদালতের নির্দেশে মঙ্গলবার স্ত্রীকে পরিশোধ করা প্রায় ২৫ হাজার রুপির পুরোয়টাই ছিল এক এবং দুই রুপির কয়েন।

অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আরকে শর্মার আদালতে ওই আইনজীবী স্বামী দুই ব্যক্তির সহায়তায় এক বস্তা কয়েন নিয়ে ঢুকলে সাড়া পড়ে যায়। এ নিয়ে রীতিমত এক নাটক সৃষ্টি হয় কোর্টরুমে।

আদালত তাকে এসব কয়েনকে কাগজের মুদ্রায় বদলে দিতে অনুরোধ করলে তিনি অস্বীকৃতি জানান। ওই আইনজীবী জানান, স্ত্রীর ভরণপোষণের অর্থ কীভাবে পরিশোধ করা হবে সে ব্যাপারে কোন আইনী বাধ্যবাধকতা নাই।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে ওই ব্যক্তি জানান, তাকে (স্ত্রীকে) আমার ২৫ হাজার রুপি দিতে হবে, অতএব সেটা আমি যেভাবে ইচ্ছা দিতে পারি।

এদিকে এসব অর্থ গুনতে যথেষ্ট সময় না থাকায় আগামি শুক্রবার পর্যন্ত আদালত মুলতবি ঘোষণা করা হয়।

আইনজীবীর স্ত্রী অভিযোগ করেন যে, ২৫ হাজার রুপির অর্থের পুরোটাই কয়েনে নিয়ে এসে তার স্বামী তার সাথে উপহাস করেছেন মূলত। এটা তাকে নির্যাতন ও হয়রানি করার নতুন কৌশল তার।

টাইমস অব ইন্ডিয়াকে তিনি বলেন, এখন এসব কয়েন নিয়ে আমি কি করব? কোন ব্যাংকই তো এসব কয়েন নিবে না।

২০১৫ সালে এ দম্পতির মধ্যে বিচ্ছেদ হয়। আইনজীবী ব্যক্তি বলছেন, তিনি তার সাবেক স্ত্রীকে আগেও ভরণপোষণের অর্থ দিয়েছেন। কিন্তু এখন তার কাছে কোন কাগজের নোট না থাকায় কয়েনে তা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, যে মাধ্যমেই হোক আমি তো তাকে অর্থ দিচ্ছিই। একটি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান থেকে এসব কয়েন আমি ধার করে নিয়ে এসেছি। সেখানে তিনি স্বেচ্ছাসেবক হিসেবেও কাজ করেন বলে তিনি জানান।

জানা যায়, এ দম্পতি ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিয়ে করেন। কিন্তু তিনমাসের বেশি তাদের বিয়ে টিকেনি। আইনজীবী স্বামী আদালতে তাদের বিচ্ছেদের জন্য আবেদন করলেও পরবর্তীতে সেটি ফিরিয়ে নেন।

কিন্তু ২০১৫ সালে আবার তিনি বিচ্ছেদের জন্য আদালতে আবেদন করেন। স্ত্রী জানাচ্ছেন, এতে তিনি স্বামীর কাছ থেকে ভরণপোষণ চেয়ে আদালতে আবেদন জানান। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত স্বামীকে নির্দেশ দেয় যে স্ত্রীকে ভরণপোষণ পরিশোধ করার।

স্ত্রী জানাচ্ছেন, এসব কয়েনই সেই ভরণপোষণের অর্থ। কিন্তু এক বস্তা কয়েন নিয়ে এসে তিনি আদালতে সবার সামনে আমার সাথে তামাসা করলেন। পরিবর্তন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত