প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

১১ বাচ্চা মারা যাওয়ায় গর্ভবতী নারীদের ওপর ভায়াগ্রার পরীক্ষা বন্ধ

আব্দুর রাজ্জাক: ন্যাদারল্যান্ডে অন্তত ১১টি বাচ্চা মারা যাওয়ার পর গর্ভবতী নারীদের ওপর ভায়াগ্রার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ বন্ধ করা হয়েছে। দেশটির রাজধানীতে অবস্থিত ‘আমস্টারডাম ইউনিভার্সিটি মেডিকেলের একটি গবেষণার জন্যই গর্ভবতী নারীদের যৌন সমস্যা ও হাইপারটেনশন জনিত সমস্যার ঔষধ হিসেবে ভায়াগ্রা দেয়া হয়েছিল। মায়েদের ওপর ভায়াগ্রা প্রয়োগ করায় বাচ্চাগুদের সবাই ফুসফুস আক্রান্ত জনিত রোগে মারা গেছে বলে জানিয়েছে ‘দ্য গার্ডিয়ান’।

মঙ্গলবার গার্ডিয়ান জানিয়েছে, ডাক্তারি পরীক্ষার অংশ হিসেবে নিহত শিশুর মায়েরা তাদের ওপর ভায়াগ্রার প্রয়োগে প্রস্তুত ছিলেন। তাদের আগত শিশুর বেড়ে ওঠা, তাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি ও জন্মপরবর্তী মৃত্যুর কারণ পরীক্ষার জন্যই তাদের ওপর ভায়াগ্রা প্রয়োগ করা হয়েছিল বলে ডাক্তারদের বরাতে জানানো হয়েছে। গর্ভবতী মায়েদের কি ধরণের ঔষধ নিতে হবে তার একটি পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হিসেবে অন্তত ১৮৩জনের ওপর গবেষণা চালানো হয়। তাদের অর্ধেককে দেয়া হয় ভায়াগ্রা হিসেবে পরিচিত সিডনেফিল এবং বাকি অর্ধেককে দেয়া হয়েছিল প্লেসবো। এগুলো রোগিদের যৌন সমস্যা ও অতিরিক্ত চিন্তাকে প্রসমিত করার কথা ছিল। কিন্তু ভায়াগ্রার বিপরীত প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। সিএনএন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ