প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মাহমুদুর রহমান আপনি কে?

মোহাম্মদ হানিফ : আপনাকে তো আমি কোনোদিন দেখিনি। আপনার মুখে না আছে দাড়ি। না পরা টুপি পাঞ্জাবি। তাহলে আপনার রক্তমাখা মুখ, রিমান্ডে অত্যাচারিত জরাজীর্ণ চেহারা দেখে বারবার চোখে পানি আসে কেন? শরীরটা কেমন করে, বুকে মুচড় দিয়ে কেঁপে -কেঁপে উঠছিল কেন? জানো মাহমুদ স্যার, আপনার শরীর রক্তে রঞ্জিত দেখে চোখে ভাসছিল জিওগ্রাফী চ্যানেলে দেখা সেই হায়েনার দল, ‘যারা শান্ত হরিণ-কে টুকরোটুকরো করে ছিন্নভিন্ন করে উদর ভরছে । আর হ্যাঁ আরো চোখে ভাসছিল শেয়াল শকুনে টেনে হিঁচড়ে বাংলার মানচিত্র ঠুকরে ঠুকরে খাচ্ছে। এইভাবে কেঁদেছিলাম যখন দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান জামায়াত নেতাদের একে একে ফাঁসি দিচ্ছিল। উনারা আর আপনি একি অপরাধী। তবে উনাদের অপরাধের মাত্রাটা একটু বেশিই ছিল। উনারা কোরআনের আইন বাস্তবায়ন করতে চায়। জনাব আপনি এতো বোকা কেনো? কার জন্য নিজের জীবন দিয়ে দিচ্ছেন? নিরপরাধ মজলুম নেতাদের সাজানো মামলা দিয়ে ফাঁসি দিল। বিশ্ববরেণ্য আলেমে দ্বীন আমৃত্যু কারাবাসে। একজন তিন তিনবারে সফল প্রধানমন্ত্রী। মুক্তিযোদ্ধার ঘোষক, রণাঙ্গনের যোদ্ধা সফল রাষ্ট্র নায়েকের স্ত্রী’কে জোরজবরদস্তি করে বাড়িছাড়া করল। রাস্তায় কুলাঙ্গার লীগের জানোয়ার দিয়ে আক্রমণ করাল। ফখরুল ইসলাম আলমগিরের মতো অত্যন্ত ‘সজ্জন’ ভদ্র ব্যক্তির উপর ও হায়েনারা ঝাঁপিয়ে পড়া। এইসবের কোনো প্রতিবাদ, প্রতিরোধ হতে দেখেছেন? তারপর ও এই দেশের জন্য আপনি লড়ার সংগ্রাম করার সাহস পেলেন কোথায়? দেখেছেন স্যার, কুষ্টিয়াতেও সামান্য কয়টা পাগলা কুকুর তাড়ানো জন্য কোনো পুরুষ মানুষ ছিলনা! আপনি অনেক আহ্বান করেছেন, কেউ শুনেছে? স্যার! নাসির উদ্দিন পিন্টুর মতো রিমান্ডে আপনি মারেননি, আপনার মায়ের দোআ ছিল। নাহয় আপনার মতো ব্যক্তি ফিরে আসার কথা ছিল না। স্যার যদি আপনার নাম ‘মাহমুদুর রহমান’ না হয়ে, শ্যামল কান্তি হত, তা হলে সুশীল সমাজ, কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় সহ সবখানে নিজেরা রক্তেমাখা শরীর সাজিয়ে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যেতো । শাহবাগে ফ্রি বিরিয়ানি আর পতিতা সাপ্লাই দিয়ে আন্দোলন জমিয়ে তুলত। আপনি না একজন সাংবাদিক? জানেন একমাত্র মানবজমিন পত্রিকাটা আপনার নিউজটা একাধারে বিস্তারিত প্রচার করেছে। এটা আওয়ামীলীগ এবং ভারতীয় দালাল পত্রিকা । এই পত্রিকার সাংবাদিকদের একটা বাজে গালি দিলাম । বেঈমানরা ছাত্রলীগের জানোয়ারদের নামই উল্লেখ করল না। সরি স্যার, আপনার জন্য কিছু চোখের পানি উপহার দেয়া ছাড়া আর কিছু করার নাই। তবে জাকির নায়েক-কে যদি দেশে আসতে দেয়া হয় তা-হলে হাসিনাকে কিঞ্চিৎ ছাড় দেবো না! সরকারের বিরুদ্ধে তুমুল আন্দোলন করে শহীদ হওয়ার বাসনা তীব্রতর আছে কিন্তু!
ফেসবুক থেকে/ সম্পাদনা:নৌশিন আহম্মেদ মনিরা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ