প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভাগ্যের জোরে বেঁচে গেছি

ডেস্ক রিপোর্ট:  হজরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় থাই এয়ারওয়েজের একটি বিমানের চাকা ফেটে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল দুপুর পৌনে একটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ কারণে দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিট থেকে দুপুর দুটা ৩৩ মিনিট পর্যন্ত রানওয়ে বন্ধ রাখা হয়। তখন সব ধরনের বিমান ওঠানাম বন্ধ থাকার কারণে ফ্লাইট শিডিউল লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়। সাতটি ফ্লাইট নির্ধারিত সময়ের চেয়ে আধা থেকে এক ঘণ্টা দেরিতে ছেড়ে যায়। সিভিল এভিয়েশন সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ব্যাংকক থেকে ১৯৮ যাত্রী নিয়ে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসা টিজি-৩২১ বিমানটি অবতরণকালে ডান পাশের চাকা রানওয়ের নিচে গিয়ে পড়ে।
এতে বিকট শব্দে বিমানটির ওই পাশের সব চাকা ফেটে যায়। অবশ্য বিমানটিকে আবার পুরোপুরি রানওয়েতে গিয়ে থামাতে সক্ষম হন পাইলট। এতে বড় ধরনের দুর্ঘটনার কবল থেকে রক্ষা পেল যাত্রীরা। ঘটেনি আহতের ঘটনাও। প্রায় দুই ঘণ্টা পর বিমানটিকে রানওয়ে থেকে সরিয়ে নেয়া হয়।

বিমান দুর্ঘটনা তদন্তকারী গ্রুপের ক্যাপ্টেন সালাহউদ্দিন মানবজমিনকে বলেন, বৃষ্টির মধ্যে বিমানটি ল্যান্ড করে। এসময় ডান পাশের চাকা রানওয়ে থেকে নিচে নেমে যায়। এ অবস্থায় কিছুটা এগিয়ে তারপর আবার রানওয়েতে ওঠে। এতে ডান পাশের ৬টা চাকাই ফেটে গেছে। একপর্যায়ে বিমানটি থামার পর যাত্রীদের স্বাভাবিকভাবে বের করে নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে।

দুই সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে ব্যাংকক থেকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে ওই বিমানে ফিরছিলেন বিলাস দাস। তিনি দুর্ঘটনার বর্ণনা দিয়ে গণমাধ্যমকর্মীকে বলেন, আমার সিট ছিল একদম চাকার ওপরে। স্পষ্ট দেখতে পাই, চাকা মাটিতে পড়ে গেছে। বিকট শব্দে বিমানের চাকা ফেটে যায়। ওপরওয়ালার রহমত ছিল বলে ভাগ্য জোরে হয়তো আজকে বেঁচে বাসায় ফিরতে পেরেছি। মানবজমিন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ