প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মানুষের বিশ্বাস ও আচরণ

কৃষিবিদ আলমগীর হোসেন: যদি বলা হয় আকাশে চার বিলিয়ন তারা আছে, তাহলে না গুনেই সবাই সেটা বিশ্বাস করবে। আর যদি বাজারে বিক্রেতার হাতের কাছে কচি লাউ স্বল্পমূল্লে পায়, মানুষ ঐ লাউকে খোঁচাবে, চিমটাবে এবং দরকষাকষিতে জর্জরিত করে ফেলবে। দুরত্ব মানুষের মাঝে বিশ্বাসকে প্রায় সময়ই দোদুল্যমান রাখে- এটাই সহজাত প্রবৃত্তি। এজন্যই কাছের জিনিসের বা মানুষের প্রতি ঘাটাঘাটিটা বা খোঁচাখুঁচিটা প্রায় প্রতীয়মান হয়। আচরণ হয় বৈচিত্র্যপূর্ণ । মানুষ নিজেকে যত না ভালোবাসে তার বিশ্বাসকে সে, ভালোবাসে আরও বেশী। বিশ্বাসের জন্য মানুষ প্রাণ দেয়, প্রাণ নেয়, তার জীবন যৌবন জলাঞ্জলি দেয়। মানুষের বিশ্বাস’- তার কর্মপ্রেরণা ও কর্মকৌশলের প্রধান চালিকা শক্তি। মূলত মানুষের চরিত্র ও কর্ম গড়ে ওঠে তার বিশ্বাসের উপর। আর বিশ্বাস নিয়ন্ত্রিত হয় জ্ঞানের মাধ্যমে। যেমন শিশুর কাছে একশত টাকার নোটের চেয়ে সমান আকারের রঙিন ‘স্টিকার’ বেশি আকর্ষণীয়। কিন্তু কিশোরের কাছে টাকার নোটটি তুলনামূলক লোভনীয়, একজন যুবকের কাছে নোটটিই আকর্ষণীয়, একজন প্রাজ্ঞ ব্যক্তির কাছে ‘স্টিকার’ মূল্যহীন এবং টাকার নোটটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
লেখক: উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, লৌহজং, মুন্সিগঞ্জ/সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত