Skip to main content

ইভাপোরেটিভ কুলার রফতানিতে ইরানের আয় ৭৫ মিলিয়ন ডলার

রাশিদ রিয়াজ : ইভাপোরেটিভ অর্থাৎ বাস্পীভবনের মাধ্যমে শীতাতাপ যন্ত্র রফতানি করে ইরান আয় করেছে ৭৫ মিলিয়ন ডলার। এধরনের কুলারে বিদ্যুৎ সাশ্রয় ঘটে বেশি। গত তিন মাসে এমন কুলার রফতানিতে ইরান আয় করেছে ৭৫.৭১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আর রফতানি হয়েছে ২৭ হাজার ২২৭ টন ইভাপোরেশন কুলার। ইরানের কাস্টমস বিভাগ এ তথ্য দিয়েছে। ইরাক, আফগানিস্তান, তুরস্ক, পাকিস্তান ও চীনে এধরনের কুলার রফতানি হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। এছাড়া সওয়াম্প কুলার, ডেজার্ট কুলার ও ওয়েট কুলার হিসেবে পরিচিত এমন কুলার বিদ্যুৎ সাশ্রয় ছাড়াও কমপ্রেসর ভিত্তিক তৈরি বলে খরচ পড়ে অপেক্ষাকৃত কম। আর শুকনো আবাহওয়ায় এধরনের কুলার বেশ ব্যবহার উপযোগী। ফিনান্সিয়াল ট্রিবিউন

অন্যান্য সংবাদ