প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজশাহীতে ককটেল বিস্ফোরণে বিএনপি, অডিও ফাঁস (অডিও)

ডেস্ক রিপোর্ট: রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর প্রচারণায় ককটেল বিস্ফোরণ মামলায় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মন্টুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার (২১ জুলাই) দিনগত রাতে মহানগরীর রামচন্দ্রপুর এলাকার নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরই মধ্যে ওই ঘটনার একটি অডিও ফাঁস হয়েছে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের আস্থাভাজন হতেই এ ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে ফোনালাপে স্বীকার করেন মন্টু। গত ১৮ জুলাই নগরীর সাগরপাড়া বটতলা এলাকায় বিএনপির মেয়র প্রার্থীর পক্ষে কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রচারণার সময় ককটেল বিস্ফোরণ হয়।

এতে সাংবাদিকসহ অন্তত ৫ জন আহত হন। পরে এ ঘটনায় অজ্ঞাতদের আসামি করে বোয়ালিয়া থানায় একটি মামলা করে পুলিশ।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র সিনিয়র সহকারী কমিশনার (সদর) ইফতে খায়ের আলম বলেন, সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে বিএনপি নেতা মন্টুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অডিও টেপও ফাঁস হয়েছে। গ্রেফতারের সময় মন্টুর লাইসেন্সকৃত পিস্তলটিও জব্দ করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের পর এ ব্যাপারে পরে আরও বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান পুলিশের এ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

তবে, মন্টুর পরিবারের দাবি, পুলিশ মন্টুকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে গেছে। তাকে কোথায় রাখা হয়েছে সে ব্যাপারে তারা জানেন না। পুলিশ এ সময় তার লাইসেন্সকৃত অস্ত্রটিও নিয়ে গেছে।

অন্যদিকে, বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল জানান, পুলিশ গভীর রাতে নগরীর রামচন্দ্রপুর এলাকার বাসা থেকে মন্টুকে ধরে নিয়ে গেছে। বিএনপি নেতা মন্টু সিটি নির্বাচনে দলীয় মেয়র প্রার্থীর পক্ষে প্রচার-প্রচারণায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছিলেন বলে জানান বুলবুল।

উল্লেখ, ১৭ জুলাই বেলা সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর সাগরপাড়া বটতলা মোড়ে বুলবুলের নির্বাচনী পথসভা চলছিল। তাতে বক্তব্য রাখছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রূহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক শহীন শওকত, জেলা বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন তপু ও সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মন্টু প্রমুখ।

এ সময় মুখোশ পরা ৬ দুর্বৃত্ত তিনটি মোটরসাইকেলে এসে সভাস্থলে পরপর তিনটি ককটেল ছুঁড়ে টিকাপাড়া সড়ক হয়ে পূর্বদিকে চলে যান। ককটেলগুলো বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হলে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান, বেসরকারি টেলিভিশন বাংলাভিশনের রাজশাহী প্রতিনিধি পরিতোষ চৌধুরি আদিত্য এবং স্থানীয় স্বপন কর্মকার আহত হন। পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা নেন তারা।

এ ঘটনায় আরো ১০-১২ জন কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করছে বিএনপি। এ হামলায় আওয়ামী লীগ জড়িত বলেও দাবি করেছেন দলটির নেতারা। তবে, এ অভিযোগ অস্বীকার করে বিএনপিই এ হামলা চালিয়েছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। এ ঘটনায় পরে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছে বিএনপি।

রাজশাহী হামলার ঘটনায় কথোপকথনে যা আছে

-ভাই…(টিপু বলে চিহ্নিত)

-ভাল আছ? (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-আছি ভাই। (টিপু বলে চিহ্নিত)

-এই কালকে কাজ-কাম করেছি, প্রচ- রোদের তাপে। জিয়াউর অসুস্থ। তো গত পরশু দিন যে ঘটনা ঘটেছে, শুনছো তো নাকি? (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-এই একটু শুনেছি, বেশি শুনি নাই। বোম্ব মেরেছে এইটা তো? (টিপু বলে চিহ্নিত)

-হ্যাঁ, (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-সেটা তো জানি। (টিপু বলে চিহ্নিত)

-কারা করলো, এটা কি জান? (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-অ্যা? (টিপু বলে চিহ্নিত)

-কারা করেছে এটা কি জানো? (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-তা জানি না (টিপু বলে চিহ্নিত)

-যাক, আমি যে কথা বলবো ওটা হজম করবা, জাগা মতো পারলে বলবা। দুই ভাই জড়িত। (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-অ্যা? (টিপু বলে চিহ্নিত)

-আমাদের দুইজন জড়িত। যে দুইজনকে দিয়ে কাজ করানো হয়েছে, ভাইয়ার কাছে ক্রেডিট নেওয়ার জন্যে, এই বোম্ব ফেলেছে। হ্যাঁ? ঠিক আছে? (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-কোন দুই ভাই? (টিপু বলে চিহ্নিত)

-তোমার নাটোর আর আমার খালেক। ওই যে শাহীন শওকত (বিএনপির রাজশাহী বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক)। (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-এইটা আমার বিশ্বাস হয়। (টিপু বলে চিহ্নিত)

-জাবেদ হলো, আমার শাহীন শওকত ভাইয়ের লোক, জাবেদ। এবং… (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

-না, ঠিক আছে। এটা আমার বিশ্বাস হয়। (টিপু বলে চিহ্নিত)

-এইটা হওয়ার সাথে সাথে, প্রায় সব ঠিক হয়ে গেছে। সব ঠিক করেছি…। (মণ্টু হিসেবে চিহ্নিত)

এদিকে, মণ্টু গ্রেপ্তার থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। তবে, বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু বলেন, ‘এই অডিওর ব্যাপারে আপনার কাছেই প্রথম শুনলাম। আগে শুনিনি। বিষয়টা আমি দেখছি।’

এই হামলার বিষয়ে মণ্টুর সঙ্গে কথা হয়েছে কি না-জানতে চাইলে টিপু বলেন, ‘ভাই, আমি বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক। কত মানুষের সাথেই তো কত কথা হইতেছে। এখন কারটা কোনটা আর কোনটা কীভাবে কারা সেট করসে সেটা তো জানি না। মানুষের কথা তো একজন আরেকজনের সঙ্গে সেট করতেছে। এইটা কেমনে আমি বলব? এই রকম কোনো কথা আমি বলসি বলে মনে নাই।’ সূত্র: সময় টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ