প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘পাকিস্তান অামলের সোনা দেখবার আইছি বাজান’

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজধানীর মিরপুর-১০ নম্বর এলাকার একটি বাড়ির নিচে গুপ্তধন রয়েছে—এমন তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। এই অভিযানের নেতৃত্ব দিচ্ছেন একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

সেই বাড়ির মাটির নিচে অাসলে কী পরিমাণ গুপ্তধন অাছে, নাকি কিছুই নেই, তা দেখতে বাড়িটির চারপাশে ভিড় জমিয়েছেন হাজার হাজার মানুষ।

২১ জুলাই, শনিবার বেলা ১১টার দিকে মিরপুর-১০ নম্বর সেকশনের সি ব্লকের ১৬ নম্বর সড়কের ১৬ নম্বর বাড়িতে এই অভিযান শুরু হয়, যা এখন পর্যন্ত চলছে।
গুপ্তধনের অভিযান দেখতে আসা উৎসুক জনতাকে আটকে রেখেছে পুলিশ।
মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দাদন ফকির বলেন, ‘অভিযান দেখতে আসা মানুষদের পুলিশি পাহারা দিয়ে ওই বাড়ি থেকে দূরে রাখা হয়েছে। বাড়িটির ছয়টি ঘরের মধ্যে তিনটি খননের কাজ চলছে।’
মাহবুব হাসান নামের স্থানীয় এক ব্যক্তিবলেন, ‘কয়েক দিন ধরেই শুনতেছি এই বাসায় নাকি অনেক সোনা লুকানো অাছে। তাই অাজ দেখতে আসছি।’
আমেনা বেগম নামের এক নারী বলেন, ‘পাকিস্তান অামলের সোনা অাছে নাকি এই বাড়িতে, তাই দেখবার আইছি বাজান।’
বাড়িটি নিয়ে বাড়ছে মানুষের কৌতূহল।
তাহেরুল ইসলাম নামে স্থানীয় এক গার্মেন্টস কর্মী জানান, মধ্যাহ্ণ বিরতির সুযোগে এই গুপ্তধন দেখতে এসেছেন। একটু পর অাবার অফিসে ফিরে যাবেন তিনি। তবে বিকেলে অফিস শেষ করে অাবারও এখানে অাসবেন বলে জানান তিনি।
এর অাগে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদ আহম্মদ জানান, ১৯৭১ সালে এই বাড়িটি একটি জল্লাদখানার মতো ছিল।
কয়েক দিন আগে বাড়িটির তৎকালীন মালিকের একজন আত্মীয় থানায় এসে এমন বিষয়ে একটি অভিযোগ করেন। এরপর বাড়িটির বর্তমান মালিকের সঙ্গে কথা বলে এই বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। সূত্র : প্রিয়.কম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত