প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চমক দেখাতে চায় ইসলামী আন্দোলন

ডেস্ক রিপোর্ট : সদ্য সমাপ্ত গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনসহ স্থানীয় সরকার নির্বাচনের ফলাফলে চমক দেখানোর পর আসন্ন বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও মেয়র পদে চমক দেখাতে চায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। দলটির নেতারা বলছেন, সিটি করপোরেশন ও স্থানীয় সরকারের অন্যান্য নির্বাচনে ৩১ বছর বয়সী দলটির প্রাপ্ত ভোট রাজনীতি ও ভোটের খবরা খবর রাখেন এমন মানুষের কাছে চমক সৃষ্টি করছে।

তারা আরও জানান, ইসলামী আন্দোলন বরিশাল কেন্দ্রিক দল হলেও এখন সারা দেশের মানুষের মাঝে আস্থা অর্জন করতে পেরেছে, আসন্ন বরিশাল সিটি নির্বাচনেও দলীয় প্রার্থী মাওলানা ওবায়দুর রহমান মাহবুব চমক দেখাবেন ভোটে। কারণ দলটির আমির মুফতি সৈয়দ রেজাউল করিমের এলাকা বরিশাল। তাছাড়া বরিশালের মানুষের কাছেও জনপ্রিয় দলটি।

এদিকে গত কয়েকটি স্থানীয় নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলনের এমন নীরব উত্থানে চিন্তায় ফেলেছে দেশের বড় দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থীকে। বিশেষ করে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারের ভোটের হিসাব-নিকাশ পাল্টে দিতে পারেন ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী। এ ছাড়া বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতের তেমন একটা ভোট বরিশালে নেই। এক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ কিছুটা সুবিধা পেতে পারেন।
ইসলামী আন্দোলনের রাজনৈতিক উপদেষ্টা আশরাফ আলী আকন জানান, বরিশাল, সিলেট ও রাজশাহীতে আমাদের প্রার্থীরা ভালো প্রতিযোগিতা করবেন। বরিশাল ও সিলেটের ব্যাপারে তারা একটু বেশি আশাবাদী। তিনি বলেন, এই শহর দুটিতে তাদের ভালো জনসমর্থন রয়েছে।

ইসলামী আন্দোলন দলীয় নেতাকর্মী সূত্রে জানা যায়, সদ্য শেষ হওয়া গাজীপুর সিটি নির্বাচনের ফলাফলে দলটির অবস্থান ছিল তৃতীয়। এখানে তাদের মেয়র প্রার্থী মো. নাসিরউদ্দিন হাতপাখা প্রতীকে পান ২৬ হাজার ৩৮১ ভোট। এবারই প্রথম দলটি এই সিটিতে মেয়র প্রার্থী দেয়। এই নির্বাচনে অংশ নেওয়া ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী পান ১ হাজার ৬৫৯ ভোট এবং বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) প্রার্থী পান ৯৭৩ ভোট।

খুলনা সিটি নির্বাচনেও প্রথমবার অংশ নিয়ে ইসলামী আন্দোলন পায় ১৪ হাজার ৩৬৩ ভোট। এটি ছিল ওই নির্বাচনে তৃতীয় সর্বোচ্চ ভোট। খুলনা সিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী পান ১ হাজার ৭২৩ ভোট। আর সিপিবির প্রার্থী পান ৫৩৪ ভোট। এর আগে ২০১৫ সালে ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পরেই ছিল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ভোট। ঢাকা উত্তরে তাদের প্রার্থী শেখ ফজল বারী মাসউদ পান ১৮ হাজার ভোট। আর দক্ষিণে আবদুর রহমান পান ১৫ হাজার ভোট। সূত্র : আমাদের সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ