Skip to main content

হজের সময় যে কাজগুলি এড়িয়ে চলবেন

আমিন মুনশি: হজের ইহরাম অবস্থায় ৮টি কাজ করা নিষিদ্ধ। এগুলোর কোনো একটি করলে অপরাধের শাস্তি হিসেবে এক বা একাধিক পশু জবেহ করতে হয়। ইহরাম অবস্থায় নিষিদ্ধ কাজের মধ্যে রয়েছে- ১.সুগন্ধি বস্তু ব্যবহার করা। ২.চুল সরানো বা তুলে ফেলা। ৩. নখ কাটা। ৪. পুরুষদের জন্য সেলাই করা কাপড় পরিধান করা। ৫. পুরুষদের জন্য মাথা ও মুখ ঢেকে রাখা। ৬. স্থল প্রাণী শিকার করা বা শিকার করতে সাহায্য করা। ৭. স্বামী-স্ত্রীর মিলন। ৮. হজের ওয়াজিব ছেড়ে দেওয়া। হজের মাকরুহ বা অপছন্দনীয় কাজসমূহ: হজের সময় অনেক কাজ আছে যা দৃষ্টিকটু বা মাকরুহ, তা এড়িয়ে চলা উচিত। এ সব কাজ হলো- ১. ঝগড়া করা মূলত নিষেধ, নিন্দনীয়। ঝগড়া করলে হজ কবুল না হওয়ার সম্ভাবনা।যতই ধৈর্য ধরতে হোক ঝগড়া এড়িয়ে যেতে হবে। ২. আরাফার ময়দানে ইমামের খুতবা দুপুরের পূর্বে দেওয়া মাকরুহ। ৩. কংকর নিক্ষেপের ক্ষেত্রে বড় পাথর ব্যবহার করা মাকরুহ। এমনিভাবে ব্যবহৃত কংকর পুনঃব্যবহার করাও মাকরুহ। ৪. মাথা মুন্ডানোর ক্ষেত্রে আংশিক মুন্ডানো কিংবা চুল আংশিক কাটা মাকরুহ। তবে মেয়েদের জন্য চুলের অগ্রভাগের আংশিক কাটা জায়েজ। ৫. আরাফার পূর্ব রাত ও মিনায় কংকর নিক্ষেপকালীন সময়ে মিনা ছাড়া অন্যত্র অবস্থান করা মাকরুহ। ৬. আরাফার ময়দানে ‘বতনে উরনায়’ অবস্থান করা মাকরুহ। ৭. মুজদালিফায় অবস্থানকালীন ‘ওয়াদিয়ে মুহাসসার’-এ অবস্থান করা মাকরুহ।