প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপির রাজনীতির এখন ভাটা চলছে: ওবায়দুল কাদের

আহমেদ জাফর: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নেতিবাচক রাজনীতির কারণে বর্তমানে বিএনপির রাজনীতির ভাটা চলছে। তাদের জোয়ার কবে নাগাদ ফিরবে তা বিএনপির কেউ জানে না।

শুক্রবার (২০জুলাই) শেখ হাসিনার গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠান উপলক্ষে চিত্রকর্ম প্রদর্শনী ও সমাবেশস্থল পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাজনীতিতে জোয়ার কখনো ভাটা থাকে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর ২১ বছর আমরা ভাটাতে ছিলাম। বিএনপি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার থাকা কালে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের ভাটা ছিল। তবে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এখন জোয়ার বইছে। আর বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতির কারণে ভাটা পড়েছে।

আওয়ামী লীগ চায় বিএনপিসহ সকল দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন। তবে বিএনপি নির্বাচনে না আসলে তাদের টেনে আনার দায়িত্ব আমাদের নয়। নির্বাচনের আগে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ হতে পারে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, ‘সংলাপ কেন? কি প্রয়োজনে? নির্বাচন হতে তো কোনো সমস্যা নেই। তারা কি জাতীয়তাবাদী নির্বাচন কমিশন চায়? তাদের প্রতিনিধি তো নির্বাচন কমিশনে আছে। তারা কি চায় নির্বাচনে জেতার গ্যারান্টি দিতে হবে? তাহলে তারা নির্বাচনে আসবে, এটা তো কেউ তাদের দিতে পারবে না।

নির্বাচন সামনে রেখে ‘গণসংবর্ধনা’ নির্বাচনী শো-ডাউন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর গণসংবর্ধনা বাংলাদেশের সর্বস্তরের মানুষের। প্রধানমন্ত্রীর গণসংবর্ধনাকে ঘিরে জনসভা জনসমুদ্রে পরিণত হবে। আমরা ক্ষমতায় এসে দেশের উন্নয়ন অর্জন করতে পেরেছি যা দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে। এ উন্নয়ন মাত্র কয়েক বছরে বিশ্বে রেকর্ড স্থাপন করেছে। বাংলাদেশের এই অর্জন ও প্রবৃদ্ধি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য সম্ভব হয়েছে।

সাধারণ সম্পাদক বলেন ‘এটা তো অভূতপূর্ব সাফল্য। সে কারণে এ সংবর্ধনা জাতির পক্ষ থেকে আমরা স্বাধীনতা সংগ্রামের নেতৃত্বদানকারী জাতির জনকের কন্যাকে দিচ্ছি। আর গণমাধ্যমের ক্যামেরাই বলে দেবে আগামীকাল শনিবারের লোক সমাগমের বিষয়টা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া ,সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শামসুল হক টুকু ,অসীম কুমার উকিল প্রমুখ।