প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘শিক্ষামন্ত্রণালয়ের নতুন পদক্ষেপ পজেটিভ হবে’

ওয়ালি উল্লাহ সিরাজ : এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। এবার সারাদেশে গড় পাসের হার ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ। এই ফলাফলটা গত কয়েক বছরের ফলাফলের থেকে ভিন্ন। গত কয়েক বছর তো আমরা দেখেছি, সবাই ঢালাও ভাবে জিপিএ-৫ পেতো। আমরা তো মিডিয়াতে এমন খবরও দেখেছি যে, একটি বিষয়ে পরীক্ষা দেয়নি অথচ ফলাফল এসেছে জিপিএ-৫। যার কারণে এবার আমাদের শিক্ষামন্ত্রণালয় ভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। আমার কাছে তাদের এই পদক্ষেপকে পজেটিভ মনে হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে চ্যানেল আইয়ের আজকের সংবাদপত্র অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম।
তিনি আরো বলেন, এবার পাস করেছে ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ শিক্ষার্থী। গত বছর পাসের হার ছিল ৬৮ দশমিক ৯১ শতাংশ। ফলে এবার ২ দশমিক ২৭ শতাংশ পাসের হার কমেছে এবং এবার ৫৭ হাজার ৯০ জন কম পাস করেছে।এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৯ হাজার ২৬২। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৩৭ হাজার ৯৬৯ জন। কমেছে আট হাজার ৭০৭ জন। এবার মাদ্রাসা, কারিগরিসহ ১০টি শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪৫৭ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এরমধ্যে আট লাখ ৫৮ হাজার ৮০১ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এবার ৪০০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে। গত বছর এমন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৫৩২টি। এবার শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে ১৩২টি।
নঈম নিজাম আরো বলেন, আমাদের দেশে কয়েক ধরণের শিক্ষা ব্যবস্থা আছে। একে তো ভিন্ন ভিন্ন শিক্ষা ব্যবস্থা তারপর আবার নেই কোনো নীতিমালা যার কারণে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় ও চাকরির পরীক্ষার ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রকার ঝামেলায় পড়তে হয়। আমার মনে হয় এখন একটি নীতিমালা হওয়া পয়োজন। এই নীতিমালা হলে অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ