প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দেশমই ২০২০ পর্যন্ত ফ্রান্সের কোচ থাকছেন

স্পাের্টস ডেস্ক : ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচ হতে পারেন জিনেদিন জিদান। গত ২৯ মে রিয়াল মাদ্রিদের কোচরে পদ থেকে যখন সরে দাঁড়ান জিদান, এই গুঞ্জনই ঘুরছিল বাতাসে। বলাবলি হচ্ছিল রাশিয়া বিশ্বকাপের পর জিদানই নিতে পারেন ফ্রান্স জাতীয় দলের দায়িত্ব। কিন্তু ফ্রান্স ফুটবল ফেডারেশনের (এফএফএফ) সভাপতি নোয়েল ডি গ্রায়েত স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিলেন, জিদান জাতীয় দলের দায়িত্ব নেওয়ার কোনো রকমই আগ্রহই দেখাননি। এফএফএফও নতুন করে কারো কথা ভাবছে না। এফএফএফ বরং আস্থা রাখছে বিশ্বকাপ জেতানো বর্তমান দিদিয়ের দেশমের প্রতিই। গ্রায়েত স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিলেন, ২০২০ ইউরো পর্যন্ত কোচ থাকছেন দেশমই।

রিয়ালের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর পর জিদান এখনো কোনো ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি করেননি। তবে বাতাসে অনেক গুঞ্জনই আছে। সর্বশেষ গুঞ্জন, ফরাসি মহানায়ক যোগ দিতে যাচ্ছেন তার সাবেক ক্লাব জুভেন্টাসে। তবে কোচ হিসেবে নয়, জুভেন্টাসে তিনি নাকি যোগ দিতে যাচ্ছেন পরামর্শকের ভূমিকায়।

এই গুঞ্জনটি সত্যি কিনা, বলবে সময়। তবে জিদানের ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচ হওয়া নিয়ে যে গুঞ্জন ছিল, তা মিলিয়ে হাওয়ায় মিলিয়ে দিলেন গ্রায়েত। বিএফএম টিভিকে দেওয়া ছোট্ট সাক্ষাৎকারে নোয়েল ডি গ্রায়েত স্পষ্ট করেই বলেছেন, ‘সত্যি বলতে, জাতীয় দলকে ট্রেনিং করানোর বিষয়ে তার (জিদান) পক্ষ থেকে কোনো রকম ইচ্ছা বা অভিব্যক্তি প্রকাশ করা হয়নি। আমরাও এ বিষয়টি নিয়ে কখনো ভাবিনি। দিদিয়ের দায়িত্বটা সামলাচ্ছেন। ২০২০ সাল পর্যন্ত সেই থাকছে। আমিও। এরপর দেখব, নতুন করে কিছু ভাবা যায় কিনা।’

৪৯ বছর বয়সী দেশম ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব নিয়েছেন ২০১২ সালে, ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ব্যর্থতার পর। সেই থেকে নিজের কাজটা ঠিকঠাকভাবেই করে যাচ্ছেন ফ্রান্সের ১৯৯৮ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। ২০১৪ বিশ্বকাপে দলকে তুলেছিলেন কোয়ার্টার ফাইনালে। এরপর ২০১৬ সালে নিজেদের মাটির ইউরোতে ফাইনালেই উঠে যায় দেশমের ফ্রান্স। কিন্তু পর্তুগালের কাছে হেরে হতে হয় রানার্সআপ। আর ধারাবাহিক উন্নতিতে এবার তো জেতালেন বিশ্বকাপই।

দেশকে দ্বিতীয় বারের মতো বিশ্বকাপ জেতানো দেশম গড়েছেন অনন্য এক কীর্তিও। অধিনায়ক ও অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপ জেতা ইতিহাসের দ্বিতীয় ব্যক্তি তিনি। তিনি ছাড়া এই কীর্তি শুধু আছে জার্মান কিংবদন্তি ফ্রাঞ্জ বেকেনবাওয়ারের। যাই হোক, দলকে বিশ্বকাপ জেতানো কোচ দায়িত্বে বহাল থাকবেন, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু গুঞ্জনটা বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছিল ব্যক্তিটি জিনেদিন জিদান বলেই। কিন্তু গ্রায়েত উড়িয়ে দিলেন সেই গুঞ্জন।

দেশমের প্রতি আস্থা রেখে বলেছেন, ‘তার (দেশম) সঙ্গে আমাদের ২০২০ পর্যন্ত চুক্তি আছে। এই দলটাকে নিয়ে অনেক কাজ করেছে সে। দিদিয়ের ও তার সহকারীরা মিলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা খেলোয়াড়দের পেছনে ব্যয় করেছে। নিজ দলের খেলোয়াড়দের খুটিয়ে খুটিয়ে দেখার পাশাপাশি প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের নিয়েও অনেক ঘাটাঘাটি করেছে। দল তার ফসলও পেয়েছে। দিদিয়ের দেশমের কাজকে অবশ্যই আমাদের গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করতে হবে। ২০২০ ইউরোর প্রথম ম্যাচে সেই থাকবে ফ্রান্সের ডাগআউটে।’

জিদান-দেশম শুধু সাবেক সতীর্থই নন, দুজনে খুব ভালো বন্ধুও। জিদানও নিশ্চয় চাইবেন দেশকে বিশ্বকাপ উহার দেওয়া দেশমের হাতেই থাক কোচের গুরুদায়িত্ব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ