প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফেসবুক ব্যবহার করে নাশকতা সৃষ্টির পায়তারা, সতর্ক সরকার

হুমায়ুন কবির খোকন : ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যারা আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটাতে এবং নাশকতা সৃষ্টির জন্য পায়তারা করছে, এ ব্যাপারে সরকার সতর্ক এবং কাজ করছে বলে জানিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। বুধবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভা শেষে কমিটির সভাপতি ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এ কথা জানিয়েছেন। সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালসহ কমিটির সদস্যরা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

কমিটির সভাপতি আমু বিগত ১৮ মে থেকে পরিচালিত মাদক বিরোধী অভিযানে এ পর্যন্ত ২৫ হাজার ৫৭৫টি নিয়মিত মামলা হয়েছে এবং মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অনেককে সাজা দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে কারাগারে আছে ৮৯ হাজার ৫৮৯ জন, তার ৪২ শতাংশই মাদকবিরোধী অভিযানে ধরা পড়েছে। মন্ত্রী বলেন, এ যাবত ৩৭ হাজার ২২৫ জন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমি যতদূর জানি, ৩০ এর মতো মারা গেছে। মাদক বিরোধী অভিযান কতদিন চলবে- জানতে চাইলে আমু বলেন, এটা যতোদিন সম্পূর্ণভাবে নিরসন না করা যায় ততোদিন পর্যন্ত চলবে।
তিনি বলেন, মাদকের পাচার রোধে বিজিবি সতর্কাবস্থায় রয়েছে। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি বিজিবির সঙ্গে অন্যান্য সংস্থাগুলোর ঐক্যবদ্ধভাবে যাতে কাজ করবে।

ঢাকা মহানগরীতে ২৮৭টি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বিট রয়েছে, প্রতিটি বিটে জঙ্গি ও মাদক বিরোধী সচেতনতামূলক প্রচারণা চলছে। পাশাপাশি মাদক বিরোধী অভিযান চলবে। তিনি বলেন, আমাদের মূল ব্যাপার আইন-শৃঙ্খলাকে সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করা এবং মাদক নিরসন। যেটার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীও জিরো টলারেন্সে ভাষণ দিয়েছেন, বার বার তিনি বলছেন। আমরাও মনে করি দেশকে যেভাবে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। সে থেকে উত্তরণের জন্য মাদক বিরোধী অভিযান অত্যন্ত ফলপ্রসুভাবে এগিয়ে যাক তার জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করি। এ ব্যাপারে মিডিয়াকে সহযোগিতার আহ্বান জানান মন্ত্রী। মন্ত্রী বলেন, বিগত মে-জুন মাসে সারা দেশে খুন, ডাকাতি, নারী নির্যাতন মামলার ৮০ শতাংশই উদঘাটিত হয়েছে। এ বছর দু’টি জঙ্গি অভিযান পরিচালিত হয়েছে। ধর্ষণ, অপহরণ, নারী নির্যাতন সবই হ্রাস পেয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ