Skip to main content

ঢাকায় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের প্রতিবাদ সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান

জীবন সাহা: প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের পেশাগত সমস্যাদি সমাধানে কালক্ষেপণের প্রতিবাদে পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স সার্ভিস এসোসিয়েশন সমন্বয় পরিষদের উদ্যোগে (১৮ জুলাই) বেলা ১২ টা থেকে ১টা পর্যন্ত ঢাকার শিক্ষা ভবন প্রাঙ্গনে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীগণ। পরিষদের আহ্বায়ক মো. ফজলুর রহমান খানের সভাপতিত্বে এ প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে বক্তাগণ অবিলম্বে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী বাংলাদেশ ন্যাশনাল বিল্ডিং কোড (বিএনবিসি) এবং ঢাকা মহানগর ইমারত নির্মাণ বিধিমালা-২০০৮ এর সংশোধিত গেজেট প্রকাশসহ পেশাগত ৩ দফা বাস্তবায়নের দাবি জানান। বক্তাগণ বলেন, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের পেশাগত দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা থাকার পরেও বিগত ৫ বছরে কারিগরি আমলাচক্রের ইশারায় তা বাস্তবায়িত হচ্ছে না। ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকারের ভেতরে ঘাপটি মেরে থাকা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী কারিগরি আমলাচক্র ও তাদের দোসররা জননন্দিত সরকারকে জনগণের কাছে হেয় প্রতিপন্ন করার হীনকৌশলে মেতে উঠেছে। প্রধানমন্ত্রীর একাধিক ঘোষণা ও নির্দেশনার পরও বিগত পাঁচ বছরেরও অধিক সময়ে ঢাকা ঢাকা মহানগর ইমারত নির্মাণ বিধিমালা-২০০৮ সংশোধিত আকারে গেজেট প্রকাশ হয়নি। বরং বিএনবিসিতে ইমারত নির্মাণ বিধিমালার সেসব বিতর্কিত ধারার সংযোজন করে দেশের প্রকৌশল অঙ্গনকে উত্তপ্ত করার ষড়যন্ত্র করছে। এ ধরনের ন্যাক্কারজনক অপকৌশল সরকারের জনবান্ধব কর্মসূচিকে বাধাগ্রস্ত করবে বলে নেতৃবৃন্দ আশংকা প্রকাশ করেন। নেতৃবৃন্দ বলেন, অতীতে কোন ষড়যন্ত্রই ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের অগ্রগতি থামাতে পারেনি, এবারও পারবে না। কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারগণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ উল্লেখ করে নেতৃবৃন্দ দেশের প্রকৌশল কর্মক্ষেত্রকে স্থিতিশীল রাখার স্বার্থে চাকরির প্রাথমিক নিযুক্তিতে ডিগ্রি প্রকৌশলীদের ন্যায় ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের একটি অগ্রিম বর্ধিত বেতন প্রদান, ডিজাইন ও প্ল্যানিং-এ কর্মরত ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার উপ-সহকারী প্রকৌশলীকে সহকারী প্রকৌশলীদের ন্যায় ৩টি অতিরিক্ত বর্ধিত ইনক্রিমেন্ট ব্যক্তিগত ভাতা হিসেবে প্রদান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও সমমানের পদ থেকে সহকারী প্রকৌশলী ও সমমানের পদের পদোন্নতির কোটা ৫০% এ উন্নীত করা এবং প্রাইভেট সেক্টরে কর্মরত ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের প্রাথমিক নিযুক্তিতে জাতীয় বেতন স্কেলের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ন্যূনতম বেতন স্কেল ঘোষণার দাবি জানান এবং এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন। কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ খবির হোসেন, ঢাকা ওয়াসা ডিইএ’র সভাপতি আঃ মান্নান, সাধারণ সম্পাদক আরমান ভূইয়া, সওজ ডিপ্রকৌস এর সভাপতি আব্দুন নুমান ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুন্তাসীর হাফিজ, বিউবো ডিপ্রকৌস এর সভাপতি আবুল কালাম আখন্দ, পিজিসিবি ডিপ্রকৌস এর সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মোঃ ইলিয়াস, বাপশিসের সাধারণ সম্পাদক এ এম জহিরুল ইসলাম, ইইডি ডিপ্রকৌস’র সভাপতি মোঃ আলতাফ হোসেন, বিএডিসি ডিইএ’র সভাপতি এম গোলাম মোহাম্মদ, পাউবোডিপ্রকৌস’র গোলাম দস্তুগীর, আইডিইবি’র ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক কামরুজ্জামান নয়ন, রেলওয়ে ডিপ্রকৌসের সভাপতি দীপক কুমার ভৌমিক, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ডিপ্রকৌস সভাপতি মোঃ নূর নবী, রেলওয়ে ডিপ্রকৌস এর সাধারণ সম্পাদক মোবারক হোসেন, ডেসকো ডিপ্রকৌস এর সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম শিমুল, প্রাইভেট সেক্টর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ফেডারেশন এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ আতিকুর রহমান, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাফর আলী সিকদারসহ বিভিন্ন সার্ভিস এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ। কর্মসূচি শেষে বেলা ১টায় কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক মোঃ ফজলুর রহমান খান ও সদস্য সচিব মোঃ সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ৫সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী, জনপ্রশাসনমন্ত্রী এবং গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রীর নিকট দাবির স্বপক্ষে স্মারকলিপি পেশ করেন। এ সময় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীর পক্ষে তাঁর একান্ত সচিব স্মারকলিপি গ্রহণ করেন।

অন্যান্য সংবাদ