প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বকাপের সেরা একাদশ নির্বাচন নিয়ে বিভ্রান্তি

স্পোর্টস ডেস্ক : রাশিয়া বিশ্বকাপের পর্দা নেমেছে গত রোববার এর দুদিন পর টুর্নামেন্টের সেরা একাদশের নাম ঘোষণা করেছে ফুটবলের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ফিফা। এই তালিকায় নাম নেই গত ১০টি ব্যালন ডি’অর ভাগাভাগি করে নেওয়া আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর লিওনেল মেসি কিংবা পর্তুগিজ তারকা রোনালদোর। তবে, বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট ব্রাজিল কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিলেও দলটির দুই তারকা ফরোয়ার্ড নেইমার ও মিডফিল্ডার পওলিনহো একাদশে জায়গা পেয়েছেন। তালিকায় ৫ দেশের খেলোয়াড়রা জায়গা করে নিয়েছেন। সবোর্চ্চ চারজন বিশ্বকাপ জয়ী দল ফ্রান্সের। ব্রাজিল, ক্রোয়েশিয়া ও ইংল্যান্ডেরও দু’জন রয়েছেন এই তালিকায়। অবশিষ্ট একজন বেলজিয়ামের। তবে, তালিকায় গোল্ডেন বল ও গোল্ডেন গ্লাভস বিজয়ীর নাম না থাকা নিয়ে বিতর্ক উঠেছে।

টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৬ গোল করে গোল্ডেন বুট জিতেছেন ইংলিশ স্ট্রাইকার হ্যারি কেন। প্রশ্ন উঠছে তাকে না রেখে কেন নেইমারকে রাখা হলো। যদিও নেইমারের রাখা নিয়ে যত বিতর্ক, হ্যারি কেনের না রাখা নিয়ে তত বিতর্ক নয়। কারণ ইংলিশ অধিনায়কের বেশির ভাগ গোলই পেনাল্টি থেকে করা। তবে নেইমারের রাখা নিয়ে তুমুল বিতর্ক উঠেছে। ফুটবল বিশেষজ্ঞদের দাবি, শেষ দুই ম্যাচে নেইমারের কিছু ঝলক দেখা গেলেও সেরা একাদশে থাকার মতো পারফর্ম তিনি করেননি।

এদিকে, বিশ্বকাপের গোল্ডেন গ্লাভস জিতেছেন বেলজিয়ামের গোলকিপার কুর্তোয়া। পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে কুর্তোয়ার গোল কিপিং ছিল দেখার মতো। নান্দনিক সব সেভ করে নিশ্চিত সব গোল বাঁচিয়েছেন তিনি। অথচ টুর্নামেন্টের সেরা একাদশে নেই কুর্তোয়া। তার জায়গায় ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ফাইনালে হাস্যকর ভুলে গোল খেয়ে বসা ফ্রান্সের গোলরক্ষক লরিসকে রাখা হয়েছে সেরা একাদশে।

প্রশ্ন উঠেছে আরেক ব্রাজিলিয়ান তারকা পওলিনহোকে নিয়েও। বলা হচ্ছে, তার চেয়ে ফ্রান্সের পগবা কিংবা কান্তে অনেক ভালো পারফর্ম করেছে। এমনকি ব্রাজিলিয়ান অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার কুতিনহোও থাকতে পারতো সেই জায়গায়। কারও কারও মতে নেইমারের জায়গায় কুতিনহোকে রাখা হলেও ব্যাপারটা মানাতো। কিন্তু নেইমারকে কেন?

ফিফার টিমের খেলোয়াড় তালিকা –
লরিস (গোলরক্ষ-ফ্রান্স), ট্রিপার (রাইট ব্যাক-ল্যান্ড), ভারানে (সেন্টার ব্যাক-ফ্রান্স), লভরেন (সেন্টার ব্যাক-ক্রোয়েশিয়া), ইয়ং (ফুল ব্যাক-ইংল্যান্ড), পওলিনহো (মিডফিল্ডার-ব্রাজিল), মদ্রিচ (মিডফিল্ডার-ক্রোয়েশিয়া), নেইমার (ফরোয়ার্ড-ব্রাজিল), গ্রিজম্যান (ফরোয়ার্ড-ফ্রান্স), হ্যাজার্ড (ফরোয়ার্ড- বেলজিয়াম)। ৪-২-৩-১ সাজানো একাদশে মূল স্ট্রাইকার হিসেবে রাখা হয়েছে ফ্রান্সের এমবাপ্পেকে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ