প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কর্মক্ষমদের একটা বড় অংশ থেকে যাচ্ছে অব্যবহৃত

কান্তা আইচ রায় : বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার ৪০ শতাংশ তরুণ আর ৬৬ শতাংশ কর্মক্ষম হলেও কাজের অভাবে এর বড় অংশ থেকে যাচ্ছে অব্যবহৃত। অর্থনীতিবীদরা বলছেন, এর সুবিধা সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে যেমন উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছানো সম্ভব আবার কর্মক্ষমতার মাত্রাতিক্ত অপচয় ভবিষ্যতে ডেকে আনতে পারে ভয়ংকর বিপর্যয়।

জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচি ইউএনডিপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ এখন তরুণ জনগোষ্ঠীর দেশ। দেশের বর্তমান কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ১০ কোটি ৫৬ লাখ যা কিনা মোট জনসংখ্যার ৬৬ শতাংশ। বাংলাদেশ এখন ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ট বা জনসংখ্যাতাত্বিক বোনাস কালের সুবিধা ভোগ করছে।
ইউএনডিপির পর্যবেক্ষনে এই পরিস্থিতি বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য বড় সুযোগ এনে দিতে পারে ।

বিশ্লেষকেরা বলছেন , কর্মক্ষম জনসংখ্যার দিক দিয়ে বাংলাদেশ সুবিধাজনক অবস্থানে আছে শুধু তাই নয়, বেশি বয়সি বা নির্ভরশীল মানুষের হারও আগের চাইতে বেশি। তবে এই সুযোগ বাংলাদেশ পাবে ২০৩০ সাল পযর্ন্ত। এরপর মোট জনসংখ্যা থেকে কর্মক্ষম জনসংখ্যা কমতে শুরু করবে। তাই যতদ্রত সম্ভব এই শক্তিকে কাজে লাগানো প্রয়োজন।

এদিকে, সরকারের পক্ষথেকেও বলা হচ্ছে তারা এই বিষয়ে পুরোপুরি ওয়াকিবহাল। এই বিষয়কে সামনে রেখেই নানা কার্যক্রম হাতে নিচ্ছে সরকার। অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম.এ.মান্নান বলেন,কেরানি তৈরির যে শিক্ষা তা থেকে সরে আসতে হবে। হাজার হাজার ছেলেমেয়ে ঐ লাইনে আছে এটাকে বলে সরিয়ে আনা সম্ভব না। তিনি আরো বলেন ,বর্তমানে কারিগরি শিক্ষার দিকে এগোনো হচ্ছে। এই লক্ষে স্কুল,কলেজ সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কে উৎসাহিত করা হচ্ছে। তবে এখনো কিছুটা সময় প্রয়োজন।

বিভিন্ন জরিপ এবং গবেষনার তথ্য অনুযায়ী, আগামী পনেরো বছর পর বুড়ো মানুষের ভাড়ে যখন ইউরোপ আমেরিকার মত উন্নত দেশগুলো কর্মদক্ষতা হারাবে তখন বাংলাদেশে ৬০ বছরের বেশি বয়সের মানুষের সংখ্যা দাঁড়াবে ১২ শতাংশ।

তাই অর্থনীতিবীদরা বলছেন ,ডেমোগ্রাফিক ডেভিডেন্ট এর সুবিধা কাজে লাগাতে পারলে ভবিষ্যতে উন্নয়ন কর্মদক্ষতা এবং বিভিন্ন অর্থনৈতিক সূচকে উন্নত দেশ গুলোকেও ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ।

সূত্র : নিউজ টোয়েন্টি ফোর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত