প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মৃত্যদন্ডপ্রাপ্ত কূলভূষণকে নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতে পাক-ভারত লড়াই তুঙ্গে

কায়কোবাদ মিলন: পাকিস্তানে গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত ভারতীয় নাগরিক কূলভূষণ যাদবকে নিয়ে দুই দেশের লড়াই এখন আন্তর্জাতিক আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে । কূলভূষণ ভারতের তৃতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি অজিত দোভালের নিকটাত্মীয় । ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল প্রকৃত পক্ষে ভারতে নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহের পরেই ক্ষমতাধর ব্যাক্তি ।
এদিকে ভারত আন্তর্জাতিক আদালতে নালিশ জানানোর পর কূলভূষণের ফাইলটি এখন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নাসিরুল মূলকের টেবিলে । পাক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এটর্ণি জেনারেলসহ বাঘা বাঘা আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন । পাকিস্তানের বিরুদ্ধে গোয়েন্দাগিরি চালানোর অভিযোগে গত বছরের এপ্রিলে পাকিস্তানের একটি সামরিক আদালত ভারতীয় নাগরিক কূলভূষণ যাদবকে মৃত্যদ- দেয় যা ভারতকে ভীষণ ক্রুদ্ধ করে তুলেছে । ফলশ্রুতিতে প্রতিকার চেয়ে ভারত ১৭ এপ্রিল হেগের আন্তর্জাতিক আদালতের শরণাপন্ন হয়েছে । এখন আগামি ১৭ এপ্রিল পাকিস্তান পাল্টা বক্তব্য নিয়ে হেগে যাচ্ছে ।
এদিকে ২৩ জানুয়ারি আন্তর্জাতিক আদালত ভারত ও পাকিস্তানকে তাদের স্ব স্ব বক্তব্য প্রদানের একটা সময়সীমা বেধে দিয়েছে । ভারতের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে হেগ ১৭ জুলাই পাকিস্তানের বক্তব্য শুনবে । ভারতের স্বনামধন্য এক আইনজীবী বলেছেন,কূলভূষণকে নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতের শুনানি আগামি বছরের জুন জুলাইয়ের আগে হওয়ার সম্ভাবনা নেই ।

এদিকে গত ১৮ মে আন্তর্জাতিক আদালতের ১০ বিচারপতি এই মামলার শুনানি তাদের আদালতে নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কূলভূষণের ফাঁসি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন । ভারত বলেছে,কোন আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে পাকিস্তান ভিয়েনা কনভেনশনের শর্তাবলী ভঙ্গ করেছে । পাকিস্তান বলেছে,ছদ্মনামে পাসপোর্ট নেয়ার মাধ্যমে কূলভূষণ যে জালিয়াতি করেছে ভারতের এ ব্যাপারে কোন কিছু বলার মুখ নেই ।
পাকিস্তানে গোলযোগ সৃষ্টির জন্য ইরান থেকে পাকিস্তানে ঢুকেছিলেন কূলভূষণ । করাচী অশান্ত করার জন্য ভারত সরকার তার পেছনে কয়েক কোটি টাকা ঢেলেছে বলে অভিযোগ রয়েছে । দ্য হিন্দু

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ