প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

কুষ্টিয়া ছাত্রদলের সভাপতি-সম্পাদকসহ ৩৪ নেতাকর্মী আটক

আব্দুম মুনিব, কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৩৪ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের আইনজীবি ব্যারিষ্টার রাগিব বউফ চৌধুরীর কুষ্টিয়া শহরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাদের আটক করে।

রাতেই প্রেস ব্রিফিং করে পুলিশ সুপার এস এম মেহেদী হাসান জানান, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে কুষ্টিয়া শহরে নাশকতার পরিকল্পনা করতে গোপন বৈঠক করছিল ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এসময় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৩টি ককটেলসহ তাদের আটক করে। বিএনপি নেতাদের দাবি, কেন্দ্রীয় নেতা ব্যারিষ্টার রাগিব বউফ চৌধুরীর সাথে নবগঠিত ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। শনিবার দুপুরে আটক নেতাকর্মীদের নাশকতা ও বিস্ফোরক মামলায় আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আটকদের মধ্যে রয়েছে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান মিঠুন, সাধারণ সম্পাদক এস আর শিপন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাব্বি, রফিকুল ইসলাম প্রশান্ত ও সাংগঠনিক সম্পাদক রোকনুজ্জামান রাসেলসহ ৩৪ নেতাকর্মী।

ব্যারিষ্টার রাগিব বউফ চৌধুরী জানায়, রাত ৯টার দিকে জেলা ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির নেতাকর্মীরা আমার সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এসেছিলেন। এ সময় পুলিশ সদস্যরা আমার বাসা ঘিরে ফেলে এবং আমাকে ঘরের মধ্যে চলে যেতে বলেন। আমি ঘরের মধ্যে না গেলে পুলিশ আমাকে ঘিরে রেখে ছাত্রদলের সভাপতি মাহফুজুর রহমান মিঠুন ও সাধারণ সম্পাদক এস আর শিপনসহ প্রায় ৪০ নেতাকর্মী গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(অপারেশন) ওবায়দুর রহমান জানান কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ বিএনপি’র ৩৪জন নেতাকর্মীকে ২৩টি ককটেলসহ আটক করা হয়েছে। তিনি জানান পুলিশের কাছে গোপন সংবাদ ছিল ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরীর বাড়িতে বিএনপি’র একদল নেতাকর্মী বিস্ফোরকদ্রব্যসহ নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ওই সংবাদের ভিত্তিতেই সেখানে অভিযান চালানো হয়।

কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সভাপতি সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী বলেন, কেন্দ্রীয় নেতা ব্যারিষ্টার রাগিব বউফ চৌধুরীর সাথে জেলা ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির নেতাকর্মীরা দেখা করতে যায়। এটা কোন অপরাধের মধ্যে পড়ে বলে আমাদের জানা নেই। এভাবে নির্যাতন করলে গণতন্ত্রের কি হবে। এদিকে এ ঘটনায় কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির সভাপতি মেহেদী আহমেদ রুমী ও বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সোহরাব উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে আটককৃত সকলের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করে বলা হয় বলা হয়, কোন কারণ ছাড়াই নেতাকর্মীদের পুলিশ আটক করেছে যা কোন গণতান্ত্রীক দেশে হতে পারে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত